ENG
২৬ মার্চ ২০১৭, ১২ চৈত্র ১৪২৩

ভাড়া বাড়ল ডিসি হিল মুক্তমঞ্চের, সংস্কৃতিকর্মীদের ক্ষোভ


  • Published: 2017-03-20 19:29:44 BdST

bdnews24
ডিসি হিল মুক্তমঞ্চ, ছবি: গুগল স্ট্রিট ভিউ

চট্টগ্রামের ডিসি হিল মুক্তমঞ্চের ভাড়া দুই হাজার থেকে বাড়িয়ে ১০ হাজার টাকা করেছে জেলা প্রশাসন।

কোনো সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো ছাড়াই ভাড়া বাড়ানো হয়েছে অভিযোগ এনে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন চট্টগ্রামের সংস্কৃতি সংগঠকরা। তারা বলছেন, ডিসি হিল মুক্তমঞ্চের ভাড়া বাড়ানো সুস্থ সাংস্কৃতিক চর্চাকে বাধাগ্রস্ত করবে।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন আগামী ১ এপ্রিল থেকে মুক্তমঞ্চের ভাড়া নির্ধারণ করেছে ১০ হাজার টাকা। এর আগে সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো দুই হাজার টাকা দিয়ে যে কোনো অনুষ্ঠানের জন্য ডিসি হিল মুক্তমঞ্চ ভাড়া নিতে পারত।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের বাংলো সংলগ্ন ডিসি হিলের এই মঞ্চে চট্টগ্রাম মহানগরীর অধিকাংশ সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন বিভিন্ন দিবস ও অনুষ্ঠান পালন করে থাকে।

মুক্তমঞ্চটির ভাড়া বাড়ানোয় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন চট্টগ্রামের সংস্কৃতি সংগঠকরা। তাদের মতে, কোনো সুযোগ-সুবিধা না থাকাও সত্ত্বেও শুধুমাত্র মঞ্চের জন্য প্রশাসনের ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্ত অত্যন্ত দুঃখজনক।

উদীচী চট্টগ্রাম জেলা সংসদের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সুনীল ধর বলেন, ডিসি হিলের মুক্ত মঞ্চে শুধুমাত্র মঞ্চই পাওয়া যায়। এর বাইরে বিদ্যুৎ সংযোগ, লাইট, সাউন্ড, ডেকোরেশন থেকে শুরু করে সবকিছুই বাইরে থেকে আনতে হয়।

তিনি বলেন, যেখানে নগরীর একটি পরিপূর্ণ মিলনায়তনে মঞ্চ থেকে সবকিছুই ১০ হাজার টাকার কমে পাওয়া যায়, সেখানে মুক্তমঞ্চের ভাড়া বাড়ানো অযৌক্তিক। এছাড়া প্রশাসনের পক্ষ থেকে সংস্কৃতিকর্মীদের সাথে কোনো প্রকার আলোচনা ছাড়াই তাদের একক সিদ্ধান্তে মুক্তমঞ্চের ভাড়া বাড়িয়েছে, যা মেনে নেওয়া যায় না।

সুনীল ধর ক্ষোভের সঙ্গে বলেন, এই ডিসি হিলে সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো কম টাকায় ভাড়া নিয়ে সুস্থ সংস্কৃতি চর্চা করত। এতে অংশ নিত সাধারণ মানুষরা। সাম্প্রতিক সময়ে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ও সচেতনা তৈরির ক্ষেত্রে সুস্থ সাংস্কৃতিক চর্চার প্রয়োজন রয়েছে। কিন্তু অযৌক্তিক ভাড়া বৃদ্ধি এ চর্চার পথে বাধা সৃষ্টি করবে।

চট্টগ্রামের অন্যতম র্শীষ আবৃত্তি সংগঠন প্রমার সভাপতি রাশেদ হাসান বলেন, এ ভাড়া বৃদ্ধি শেষ পর্যন্ত সুস্থ সাংস্কৃতিক চর্চাকে বাধাগ্রস্ত করবে। সংস্কৃতিবান্ধব সরকার সংস্কৃতি কর্মীদের পক্ষে যে কাজ করে যাচ্ছে এ সিদ্ধান্ত তার বিপরীতমুখী অবস্থান অবলম্বন করছে।

দ্রুতই ডিসি মুক্তমঞ্চের ভাড়া কমিয়ে যৌক্তিক জায়গায় আনার দাবি জানান তিনি।

এদিকে জেলা প্রশাসক ও বিভাগীয় কমিশনারের বাসভবন সংলগ্ন ডিসি হিল মঞ্চের ব্যবস্থাপনা ও নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখেই ভাড়া বাড়ানো হয়েছে বলে দাবি করছেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মো. সামসুল আরেফিন।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, ‍“প্রতিদিন বিভিন্ন সংগঠনের অনুষ্ঠান লেগে থাকায় ডিসি হিলের ময়লা-আবর্জনা বাড়ছে, নানা ধরনের লোকজনের অংশগ্রহণের ফলে নিরাপত্তার দিকটিও মাথায় রাখা হয়েছে।

“সামগ্রিক বিবেচনায় পূর্বের চেয়ে বেশি কার্যকর নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য আনসার সদস্য নিয়োগ এবং সামগ্রিক ব্যবস্থাপনায় ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।”

সংস্কৃতি সংগঠকদের ক্ষোভ প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক সামসুল আরেফিন বলেন, “আমরা এ বিষয় নিয়ে দ্রুতই চট্টগ্রামের সংস্কৃতিকর্মীদের সাথে বৈঠক করে আলোচনা করব, মতামত নেব।”

চট্টগ্রামে ডিসি হিল ছাড়া নগরীর শিল্পকলা একাডেমি ও সিআরবি শিরিষ তলায় মুক্তমঞ্চ রয়েছে। তবে পহেলা বৈশাখ ছাড়া সিআরবি শিরিষতলার মুক্তমঞ্চ সংস্কৃতিকর্মীরা অনুষ্ঠানের জন্য কম ব্যবহার করে থাকেন। এ কারণে শিল্পকলা একাডেমি ও ডিসি হিল মুক্তমঞ্চের ব্যবহারই বেশি হয়ে থাকে।

এই ডিসি হিল মুক্ত মঞ্চেই সত্তরের দশকের শেষ দিকে শুরু হয় সম্মিলিত পহেলা বৈশাখের বর্ষবরণ ও বিদায় অনুষ্ঠান। ধীরে ধীরে এ অনুষ্ঠানই চট্টগ্রামের বর্ষবরণের প্রধান অনুষ্ঠানে পরিণত হয়।

গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় থেকে ডিসি হিলে একটি স্থায়ী মুক্তমঞ্চ তৈরি করার পর লিখিত আবেদনের মাধ্যমে বিভিন্ন সংগঠন সেখানে অনুষ্ঠান করত। পরবর্তীতে ওই মুক্তমঞ্চের ভাড়া নির্ধারণ করা হয় দুই হাজার টাকা।