ENG
২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৮ আশ্বিন ১৪২৪

সংসদকেও বিচার বিভাগের প্রতিপক্ষ করা হচ্ছে: ফখরুল

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2017-09-13 22:01:15 BdST

bdnews24
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর (ফাইল ছবি)

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় নিয়ে এখন সংসদকেও বিচারবিভাগের প্রতিপক্ষ হিসেবে দাঁড় করানোর চেষ্টা সরকার করছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি।

বুধবার রাতে সংসদে এই সংক্রান্ত প্রস্তাব নিয়ে আলোচনার আগে বিকালে ঢাকার রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে দলের এক আলোচনা সভায় এই অভিযোগ করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, “আজকে সংসদে একটি প্রস্তাব আনা হচ্ছে। এটা সুনির্দিষ্টভাবে পার্লামেন্টকে বিচার বিভাগের বিরুদ্ধে প্রতিপক্ষ হিসেবে দাঁড় করনো। আমরা এর ঘোরতর নিন্দা জানাচ্ছি।”

বিচারপতিদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে নিয়ে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধন বাতিলের রায় গত ১ অগাস্ট প্রকাশের পর থেকে তা নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গনে তুমুল আলোচনা চলছে।

ওই রায়ে জিয়াউর রহমানের সামরিক শাসনামলে চালু করা সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের ব্যবস্থা পুনঃস্থাপন করতে বলা হয়। সুপ্রিম কোর্টের এই রায়কে ঐতিহাসিক বলছে বিএনপি।

অন্যদিকে রায়ের পর্যবেক্ষণে প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে খাটো করেছেন বলে ক্ষোভ প্রকাশ করে আসছেন আওয়ামী লীগের নেতারা। তারা প্রধান বিচারপতির পদত্যাগের দাবিও তুলেছেন।

রায়ের পর্যবেক্ষণে সংসদকে অপরিপক্ক বলার প্রতিবাদ জানিয়ে আসছেন সংসদ সদস্যদের অনেকে।

এই রায়ের কিছু বিষয়ে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানিয়েজাসদের এমপি মইন উদ্দীন খান বাদল সংসদে আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছেন, যা বুধবারের অধিবেশনের কার্যসূচিতে রয়েছে।

প্রস্তাবে বলা হয়, “সংসদের অভিমত এই যে, সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী ‘অসাংবিধানিক’ ঘোষণা করে আপিল বিভাগের দেওয়া রায় বাতিল এবং রায়ে জাতীয় সংসদ ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে মাননীয় প্রধান বিচারপতির দেওয়া অসাংবিধানিক, আপত্তিকর ও অপ্রাসঙ্গিক পর্যবেক্ষণ বাতিল করার জন্য যথাযথ আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হোক।”

ফখরুল বলেন, “এইভাবে বিচার বিভাগকে হেয় প্রতিপন্ন করে, প্রধান বিচারপতিকে হেয় প্রতিপন্ন করে, বিচারপতিদের হেয় প্রতিপন্ন করে আজকে রাষ্ট্রের মূলভিত্তিকে নষ্ট করে ফেলা হচ্ছে।উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে এই রাষ্ট্রকে তারা সত্যিকারভাবে একটা গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র হিসেবে রাখতে চায় না, তারা চায় পুরোপুরিভাবে একটা পরনির্ভরশীল দুর্বল জাতি হিসেবে রাখতে চায়। সেজন্য এই প্রতিষ্ঠানগুলো ও এই স্তম্ভগুলোকে তারা ভেঙে দিচ্ছে।”

দলের জ্যেষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের দশম কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে এই আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ফখরুল। প্রধান অতিথি ছিলেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

প্রচার সম্পাদক শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানির পরিচালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমানউল্লাহ আমান, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, বিশেষ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপন, আইন বিষয়ক সম্পাদক কায়সার কামাল।