অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপে প্রথম পর্ব এড়ানোর পথ জানল বাংলাদেশ

দুই বিশ্বকাপের মাঝে ব্যবধান স্রেফ এক বছর। এত কম সময়ের মধ্যে বাছাইয়ের প্রচলিত পদ্ধতি অনুসরণ করার সুযোগ নেই। তাই আগামী বছর অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠেয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য নতুন পদ্ধতি বেছে নিয়েছে আইসিসি। চলতি আসরে অংশ নেওয়া প্রতিটি দলেরই সুযোগ আছে সরাসরি সুপার টুয়েলভে জায়গা করে নেওয়ার।

এবার নিয়ে টানা তিনটি আসরে প্রাথমিক পর্বে খেলছে বাংলাদেশ। আগের দুইবারের ধারাবাহিকতায় পরের ধাপে যেতে পারলে অস্ট্রেলিয়া আসরে খেলা নিশ্চিত হবে তাদের।

আইসিসি শনিবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, এবারের আসরে সুপার টুয়েলভে জায়গা পাওয়া ১২ দল খেলবে অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপে। এখান থেকে আটটি দল সরাসরি যাবে ২০২২ বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে।

ওই আট দল নির্ধারণের পদ্ধতি জানিয়েছে আইসসি। আগামী ১৪ নভেম্বরের ফাইনালের দুই দল ২০২২ বিশ্বকাপের দুই শীর্ষ বাছাই হবে। তাদের সঙ্গী হবে আগামী ১৫ নভেম্বর র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে থাকা সুপার টুয়েলভের ৬ দল।

২০২১ আসরের সুপার টুয়েলভের বাকি চার দলের পরের আসরে খেলতে হবে প্রথম পর্বে।

আগামী রোববার বিশ্বকাপের উদ্বোধনী দিনে স্কটল্যান্ডের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। বিশ্বকাপ শুরুর আগে ২৪১ পয়েন্ট নিয়ে র‍্যাঙ্কিংয়ে ৬ নম্বরে রয়েছে মাহমুদউল্লাহর দল। এই অবস্থান ধরে রাখতে পারলে পরের আসরে সরাসরি সুপার টুয়েলভে খেলবে তারা। র‌্যাঙ্কিংয়ে আটের ভেতরে থাকলেও এই সুযোগ থাকতে পারে, যদি দুই ফাইনালিস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা দল হয়।

অস্ট্রেলিয়াতে এবারই প্রথম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসর বসবে। ১৬ দলের টুর্নামেন্টে ম্যাচ হবে ৪৫টি। এই আসর হওয়ার কথা ছিল গত বছর। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে সেটা পিছিয়ে দেওয়া হয় ২০২২ সালে। সেখানে খেলা হবে ১৬ অক্টোবর থেকে ১৩ নভেম্বর।