সাংবাদিক রোজিনাকে রিমান্ডে চায় পুলিশ

সরকারি নথি ‘চুরির চেষ্টা’ এবং মোবাইলে ‘ছবি তোলার’ অভিযোগে গ্রেপ্তার প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে আদালতে নেওয়া হয়েছে।

‘অফিসিয়াল সিক্রেটস’ আইনের মামলায় এই সাংবাদিককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচ দিনের রিমান্ডেরও আবেদন করেছেন তদন্ত কর্মকর্তা শাহবাগ থানার পরিদর্শক আরিফুর রহমান সর্দার।

মঙ্গলবার সকালে ঢাকার মহানগর হাকিম মোহাম্মদ জসীমের আদালতে রোজিনার রিমান্ড শুনানি হতে পারে বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবীরা।

রোজিনার পক্ষে শুনানি করতে আদালতে আছেন আইনজীবী এহসানুল হক সমাজি ও প্রশান্ত কর্মকার। এছাড়া বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্রাস্টের (ব্লাস্ট) আইনজীবী মশিউর রহমানও এসেছেন।

সোমবার দুপুরের পর স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিবের একান্ত সচিব মো. সাইফুল ইসলাম ভূঞার কক্ষে রোজিনাকে আটক করার পর প্রায় সাড়ে ৫ ঘণ্টা সেখানে তাকে আটকে রাখা হয়।

রাত সাড়ে ৮টার দিকে তাকে শাহবাগ থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। পরে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের উপসচিব শিব্বির আহমেদ বাদী হয়ে অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টে মামলা করেন তার বিরুদ্ধে।

ঢাকা মহানগর পুলিশের রমনা বিভাগের উপ কমিশনার সাজ্জাদুর রহমান জানান, মঙ্গলবার সকালে তারা রোজিনাকে আদালতে পাঠিয়ে দেন। সেখানে তাকে হাজতখানায় রাখা হয়েছে।

“তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য আমরা পাঁচ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেছি।”

‘অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টে’র মামলায় প্রথম আলোর সাংবাদিক রোজিনা গ্রেপ্তার  

সচিবালয়ে আটক প্রথম আলোর সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে পুলিশে সোপর্দ

পাল্টা মামলা করব: রোজিনার স্বামী  

 

 

 

 

 

 

আরও পড়ুন