দক্ষিণ কোরিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রীকে শেখ হাসিনার অভিনন্দন

দক্ষিণ কোরিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী কিম বু-কিয়াম
দক্ষিণ কোরিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী কিম বু-কিয়ামকে বাংলাদেশের সরকার ও জনগণের পক্ষ থেকে অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার এক অভিনন্দন বার্তায় তিনি বলেন, কিম তার রাজনৈতিক প্রজ্ঞা ও নেতৃত্বের মাধ্যমে সফলভাবে তার দেশকে ‘বৃহত্তর শান্তি ও সমৃদ্ধির দিকে’ নিয়ে যাবেন বলে তিনি আশাবাদী।

শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ এবং দক্ষিণ কোরিয়ার দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক প্রতিষ্ঠিত হয়েছে পারস্পরিক বিশ্বাস, শান্তির প্রতি দৃঢ় প্রত্যয়, সুরক্ষা এবং সকলের জন্য সমৃদ্ধির যৌথ প্রত্যাশার ওপর ভিত্তি করে।

কোরিয়া প্রজাতন্ত্রের সঙ্গে বাংলাদেশের ঘনিষ্ঠ, বন্ধুত্বপূর্ণ এবং বহুমুখী সম্পর্কের গভীরতার ওপর গুরুত্ব আরোপ করে তিনি বলেন, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এ সম্পর্ক আরও জোরদার হয়েছে।

“আমি আন্তরিকভাবে বিশ্বাস করি, আমাদের বন্ধুত্ব এবং সহযোগিতার যে ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে তাকে বৃহত্তর বাণিজ্য, বিনিয়োগ, মানব সম্পদ উন্নয়ন এবং কারিগরি সহযোগিতার জন্য দুই দেশের জনগণের স্বার্থে কাজে লাগনো যেতে পারে।”

শেখ হাসিনা বাংলাশের অবকাঠামো এবং আর্থসামাজিক উন্নয়নে দক্ষিণ কোরিয়াকে বিনিয়োগের আহ্বান জানান। জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে দক্ষিণ কোরিয়া সরকারের অব্যাহত সহযোগিতায় তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেন।

বিভিন্ন আঞ্চলিক এবং বৈশ্বিক বিষয়ে দক্ষিণ কোরিয়া সরকারের সঙ্গে নিবিড়ভাবে কাজ করে যাওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী।

এ প্রসঙ্গে তিনি রোহিঙ্গা শরণার্থীদের দ্রুত, নিরাপদ ও টেকসই প্রত্যাবাসনের ওপর গুরুত্ব আরোপ করে বলেন, এ অঞ্চলের শান্তি, স্থিতিশীলতা এবং নিরাপত্তার জন্য এটা জরুরি।

বিভিন্ন ফোরামে, বিশেষ করে জাতিসংঘে দক্ষিণ কোরিয়ার অব্যাহত সম্পৃক্ততারও প্রশংসা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি সুবিধাজনক সময়ে দক্ষিণ কোরিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রীকে বাংলাদেশ সফরেরও আমন্ত্রণ জানিয়েছেন অভিনন্দন বার্তায়। 

আরও পড়ুন