সেলিম প্রধানের বিচার নিয়ে আদেশ ৩১ অক্টোবর

দুর্নীতি ও অর্থ পাচারের মামলায় অনলাইনে জুয়ার কারবারি সেলিম প্রধানের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের বিষয়ে ৩১ অক্টোবর আদেশ দেবে আদালত।

ঢাকার ৬ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক আল আসাদ মো. আসিফুজ্জামান রোববার অভিযোগ গঠনের শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

অভিযোগ গঠনের শুনানির সময় রোববার সেলিম প্রধানকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়।

দুদকের পক্ষে আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল এবং আসামির অব্যাহতি চেয়ে শুনানি করেন শাহীনুর ইসলাম অনি।

৫৭ কোটি ৭৯ লাখ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জন ও ২২ কোটি টাকা বিদেশে পাচারের এ মামলার অভিযোগপত্র গত বছর অনুমোদন করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

চলতি বছর ১৭ জানুয়ারি দুদকের উপ-পরিচালক মো. গুলশান আনোয়ার আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

ঢাকায় ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানের মধ্যে গত বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে সেলিম প্রধানকে আটক করে র‌্যাব। এরপর তার গুলশান, বনানীর বাসা ও অফিসে অভিযান চালানো হয়। অভিযানে ২৯ লাখ টাকা, বিপুল পরিমাণ বিদেশি মদ ও বিভিন্ন দেশের মুদ্রা জব্দ করা হয়।

সেখান থেকে সাতটি ল্যাপটপ ও দুটি হরিণের চামড়া জব্দ করার পাশাপাশি সেলিমের কর্মচারী আক্তারুজ্জামান ও রোকনকে গ্রেপ্তার করা হয়। হরিণের চামড়া উদ্ধারের ঘটনায় ওই দিনই সেলিম প্রধানকে বন্য প্রাণী সংরক্ষণ আইনে ৬ মাসের কারাদণ্ড দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত।

পরদিন গুলশান থানায় তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ও মুদ্রাপাচার প্রতিরোধ আইনে দুটি মামলা করে র‌্যাব।

সেলিম প্রধান ‘প্রধান গ্রুপ’ নামে একটি ব্যবসায়ী গ্রুপের চেয়ারম্যান। এই গ্রুপের অধীনে পি২৪ গেইমিং নামের একটি কোম্পানি আছে, যারা রীতিমত ওয়েবসাইটে ঘোষণা দিয়ে ক্যাসিনো ও অনলাইন ক্যাসিনোর কারবার চালিয়ে আসছিল।