হোটেল কক্ষে ঢাবি ছাত্রের ঝুলন্ত লাশ, পাশে চিরকুট

রাজধানীর তোপখানা রোডের একটি আবাসিক হোটেল থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ; কক্ষে পাওয়া গেছে একটি চিরকুট।

বৃহস্পতিবার প্রথম প্রহরে হোটেল কর্ণফুলীর একটি কক্ষ থেকে আদনান সাকিব নামের ২৫ বছর বয়সী ওই শিক্ষার্থীর মৃহদেহ উদ্ধার করা হয় বলে শাহবাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাহফুজুল হক ভূইয়া জানান।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ২০১৪-১৫ সেশনের ছাত্র আদনান সাকিবের গ্রামের বাড়ি নীলফামারী জেলার ডিমলা উপজেলায়; বাবার নাম আব্দুল মালেক।

হোটেল কক্ষের দরজা ভেঙে সাকিবের ঝুলন্ত লাশ পাওয়ার কথা জানিয়ে পরিদর্শক মাহফুজ বলেন, “সে আত্মহত্যা করেছ বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি আমরা।”

এই পুলিশ কর্মকর্তা জানান, সাকিব বিবাহিত ছিলেন। তার স্ত্রীও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। মঙ্গলবার রাতে যোগাযোগ করতে না পেরে এবং মোবাইল বন্ধ পাওয়ায় তার স্ত্রী বুধবার সকালে থানায় জিডি করেছিলেন।

“সে ওই হোটেলে উঠেছিল মঙ্গলবার। বুধবার রাতে হোটেলের লোকজন ডাকাডাকি করে সাড়া না পাওয়ায় পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ গিয়ে রাত সাড়ে ১২টার দিকে দরজা ভেঙে লাশ উদ্ধার করে।”

ওই কক্ষে একটি চিরকুট পাওয়ার কথা জানিয়ে পরিদর্শক মাহফুজ বলেন, “সেখানে স্ত্রীকে 'পৃথিবীর শুদ্ধতম' মানুষ হিসাবে বর্ণনা লেখা হয়েছে, মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী না, মানসিক চাপের কথা বলা হয়েছে।”

পরিবারের সঙ্গে কথা বলেও সাকিবের ‘মানসিক চাপের মধ্যে থাকার’ কথা জানতে পেরেছেন বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

তিনি বলেন, গ্রাম থেকে সাকিবের পরিবারের সদস্যরা আসছেন। তার লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।