তৃতীয় ধাপের ইউপি ভোটে ‘শঙ্কার কিছু’ দেখছে না ইসি

সহিংসতা আর প্রাণহানির মধ্য দিয়ে প্রথম দুটি ধাপ পেরিয়ে তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে ‘আশঙ্কার কিছু’ দেখছে না নির্বাচন কমিশন-ইসি।

ভোটের আগের দিন শনিবার প্রস্তুতির সর্বশেষ সাংবাদিকদের জানিয়ে নির্বাচন কমিশন সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকার বলেন, “ইসি অবশ্যই প্রত্যাশা করে, এ নির্বাচনটি ভালো হবে।”

রোববার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত তৃতীয় ধাপে হাজারো ইউনিয়ন পরিষদে একটানা ভোট চলবে।

ভোটের সব ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে জানিয়ে ইসি সচিব বলেন, “নির্বাচন সুষ্ঠু করার পাশাপাশি গোলযোগ-সহিংসতা যাতে এ ধাপে না ঘটে সে বিষয়ে সজাগ রয়েছে নির্বাচন কমিশন। এ মুহূর্তে কোথাও কোনো আশঙ্কার কিছু নেই।”

তবে তিনি একইসঙ্গে বলেন,  “ইউপিতে ঘরে ঘরে, বাড়ি বাড়ি, পাড়ায় পাড়ায় প্রতিযোগিতা চলে। যে কোনো মুহূর্তে যে কোনো কিছু ঘটতে পারে। এটি হতেই থাকে।

“তবে আইন শৃঙ্খলাবাহিনী ও জেলা প্রশাসনকে নির্দেশনা দেওয়া রয়েছে। আশা করি, আগামীকালও ভালো নির্বাচন হবে, গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হবে। এখন পর্যন্ত বলতে পারি- নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক ও গ্রহণযোগ্য হয়েছে।”

নির্বাচন ‘আইসিইউতে’, গণতন্ত্র ‘লাইফ সাপোর্টে’: মাহবুব তালুকদার

ইউপি ভোটে সহিংসতা বন্ধে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী: কাদের  

ইউপি ভোটে সহিংসতার পেছনে ব্যক্তিগত দ্বন্দ্ব: আইনমন্ত্রী

ইউপি ভোট: প্রচারে বিরত ও এলাকা ছাড়তে এমপিদের অনুরোধ ইসির  

আচরণবিধি প্রতিপালনে কমিশনের অবস্থান তুলে ধরে সচিব জানান, ইতোমধ্যে তিন সংসদ সদস্যকে নোটিস দেওয়া হয়েছে, পাঁচজন কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

ইউপি ভোটকে কেন্দ্র করে বেশ কিছু নির্বাচনী এলাকায় আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ উঠে এবার। ভোটের আগে-পরে ও ভোটের দিন সহিংসতায় এ পর্যন্ত তিন ডজনের বেশি মানুষের মৃত্যু ঘটেছে।

নির্বাচনী পরিস্থিতি নিয়ে বুধবার আইন শৃঙ্খলা বৈঠক শেষে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা জানান, আগামী নির্বাচনে আমরা আপ্রাণ চেষ্টা করব নির্বাচনী সহিংসতা রোধ করার জন্য।

ভোটের পরিবেশ ভালো রাখতে রাজনৈতিক দল, প্রার্থী ও সমর্থকসহ সবার সহযোগিতা চান প্রধান নির্বাচন কমিশনার।

ভোটের তথ্য

>> তৃতীয় ধাপে ইউপির সংখ্যা- ১,০০০। তফসিল ঘোষণা করা হয় ১,০০৭টির, বিভিন্ন কারণে স্থগিত হয় ৭টি।

>> ভোটার ২,০১,৪৮,২৭৮ জন। ভোটকেন্দ্র ১০,১৫৯টি, ভোটকক্ষ ৬১,৮৩০টি।

>> প্রার্থী ৫০,১৪৬ জন (বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ছাড়া)।

এর মধ্যে চেয়ারম্যান ৪,৪০৯ জন, সংরক্ষিত ১১,১০৫ জন ও সাধারণ সদস্য ৩৪,৬৩২ জন।

>> বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ৫৬৯ জন।

এর মধ্যে চেয়ারম্যান ১০০ জন, সংরক্ষিত সদস্য ১৩২ জন ও সাধারণ সদস্যা ৩৩৭ জন।

>> রোববার অষ্টম ধাপে নয়টি পৌরসভায়ও ভোট রয়েছে।

করোনাভাইরাস মহামারী পরিস্থিতির উন্নতির প্রেক্ষাপটে ২১ জুন ও ২০ সেপ্টেম্বর প্রথম ধাপে এবং ১১ নভেম্বর দ্বিতীয় ধাপে ইউপি নির্বাচনে ভোট হয়। এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন দল অংশ নিলেও বিএনপি নিচ্ছে না।

ইতোমধ্যে পাঁচটি ধাপে ইউপি ভোটের তফসিল ঘোষণা করেছে কমিশন। প্রথম দুই ধাপে প্রায় ১২শ’ ইউপিতে ভোট শেষ হয়েছে। চতুর্থ ধাপে ২৬ ডিসেম্বর ৮৪০ ইউপিতে ভোট হবে। পঞ্চম ধাপে ৭০৭ ইউপিতে ভোট হবে ৫ জানুয়ারি।

আগামীতে ষষ্ঠ ধাপে নির্বাচন উপযোগী আরও তিন শতাধিক ইউপি’র তফসিল ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

আরও পড়ুন

তৃতীয় ধাপে হাজার ইউপিতে ভোট ২৮ নভেম্বর  

ইউপি ভোটে সহিংসতার পেছনে ব্যক্তিগত দ্বন্দ্ব: আইনমন্ত্রী  

তৃতীয় ধাপে সহস্র ইউপিতে ভোটের প্রস্তুতি  

ইউপি: ভোট পড়েছে ৭৩%, জয়ী আ. লীগ ৪৮৬, স্বতন্ত্র ৩৩০