বাস চাপায় মৃত্যু: চালকের বিরুদ্ধে মাঈনউদ্দিনের মায়ের মামলা

রাজধানীর রামপুরায় বাসের চাপায় সদ্যসমাপ্ত এসএসসি পরীক্ষার্থী মাঈনউদ্দিনের মৃত্যুর ঘটনায় ‘বেপরোয়া বা অবহেলাজনিত’ মৃত্যু সংঘটনের চালকের বিরুদ্ধে একটি মামলা হয়েছে।

নিহত শিক্ষার্থীর মা রাশেদা বেগম বাদী হয়ে মঙ্গলবার অনাবিল পরিবহনের সংশ্লিষ্ট বাসের চালককে আসামি করে রামপুরা থানায় মামলাটি করেন বলে ঢাকা মহানগর পুলিশের মতিঝিল বিভাগের উপ-কমিশনার আব্দুল আহাদ জানান।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, সড়ক পরিবহন আইনের ১০৫ ধারায় মামলা হয়েছে। মামলায় আসামির নাম উল্লেখ না করলেও তার সন্তান নিহত হওয়ার ঘটনায় অনাবিল পরিবহনের একটি নির্দিষ্ট নম্বরধারী বাসের চালককে দায়ী করা হয়েছে।

এঘটনায় সোহেল (৩৫) নামে এক চালক ও তার সহকারী চাঁন মিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলেও ওসি জানান।

রামপুরার একরামুন্নেছা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে সদ্য এসএসসি পরীক্ষায় অবতীর্ণ ১৯ বছরের মাঈনউদ্দিনকে সোমবার রাত ১০টার দিকে ডিআইটি রোডে পূর্ব রামপুরা লাজ ফার্মার সামনে একটি বাসের চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

বাসে অর্ধেক ভাড়া ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মধ্যেই এ ঘটনা ক্ষোভের আগুনে আরও রসদ জোগায় । ঘটনার পর সেখানে অন্তত আটটি বাস পুড়িয়েছে ক্ষুব্ধ জনতা।

ওই ঘটনায় কয়েকটি বাসে অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরের অভিযোগে পুলিশ বাদী হয়ে আরেকটি মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে রামপুরা থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান।

ওসি বলেন, মঙ্গলবার বিকালে মাইনুল ইসলামের ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে মৃতদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:

‘আমার পুতের জন্মদিন গো’: বিলাপ থামছে না মাঈনউদ্দিনের মায়ের  

সড়কে মৃত্যুর পর ঢাকার রামপুরায় ৮ বাসে আগুন  

৯ দফা: নীলক্ষেত, শান্তিনগরে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ, মঙ্গলবার বিআরটিএ ঘেরাও  

‘বড় হয়ে গেছি’ বলে চলে গেল নাঈম  

ময়লার ট্রাকের ‘চাপায়’ প্রাণ গেল নটর ডেম ছাত্রের