গরু বিমানের কাছে গেল কীভাবে, তদন্তে কমিটি হচ্ছে; ৪ আনসার প্রত্যাহার

কক্সবাজার বিমানবন্দর। ফাইল ছবি
কক্সবাজার বিমানবন্দরের রানওয়েতে উড্ডয়নের সময় বিমানের সঙ্গে গরুর ধাক্কা লাগার ঘটনা তদন্তে কমিটি গঠন হচ্ছে। তার আগে দায়িত্বে অবহেলার কারণে চার আনসার সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

ওই বিমানবন্দরের রানওয়েতে চলে যাওয়া ওই গরু দুটির  মালিককেও খোঁজা হচ্ছে। তবে কেউ এখনও গরুগুলোর মালিকানার দাবি নিয়ে আসেনি।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের (ফ্লাইট নং বিজি ৪৩৪) বোয়িং ৭৩৭ উড়োজাহাজটি মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কক্সবাজার রানওয়ে থেকে উড্ডয়নের সময় বিমানটির ডানপাশের পাখার সঙ্গে দুটি গরুর ধাক্কা লাগে। গরু দুটি মারা গেলেও বিমানটি নিরাপদেই যাত্রীদের নিয়ে ঢাকায় আসে।

বিরল এই ঘটনার বিষয়ে পদক্ষেপ জানতে চাইলে কক্সবাজার বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপক গোলাম মুর্তুজা বুধবার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “ওই ঘটনায় নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা চার আনসার সদস্যকে বিমানবন্দর থেকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। আর একটি তদন্ত কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া চলছে।”

গরু দুটির মালিককে বুধবার বিকেল অবধি খুঁজে পাওয়া যায়নি বলে জানান তিনি।

এ ঘটনায় বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের পদক্ষেপ জানতে চাইলে সংস্থাটির জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহেল কামরুজ্জামান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ‘বলার মতো কোনো তথ্য’ এখনও তার হাতে নেই।

গরুর সঙ্গে ধাক্কা লেগে বিমানের বোয়িং উড়োজাহাজটির কোনো ক্ষতি হয়েছে কি না- জানতে চাইলে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু সালেহ মোস্তফা কামাল বুধবার সকালে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এখনও ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণ সম্পন্ন হয়নি।

মঙ্গলবার কক্সবাজার বিমানবন্দরের নিরাপত্তায় নিয়োজিত ১৪ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক (এসপি) মো. নাইমুল হক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেছিলেন, উড়োজাহাজটির ধাক্কায় রানওয়েতেই গরু দুটির মৃত্যু হয়।

এরপর ঢাকায় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণের সব প্রস্তুতি নেওয়ার পর ওই বিমানটিকে নামার অনুমতি দেওয়া হয়। এ জন্য বিমানটিকে বাড়তি প্রায় ২০ মিনিট আকাশে উড়তে হয়।