শহীদ মিনারে শনিবার দুপুরে গাফফার চৌধুরীকে শ্রদ্ধা

‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’ গানের রচয়িতা, সাংবাদিক-সাহিত্যিক আবদুল গাফফার চৌধুরীর মরদেহ দেশে পৌঁছাবে শনিবার সকালে।

দুপুরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী করবস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

যুক্তরাজ্যের হিথ্রো এয়ারপোর্ট থেকে স্থানীয় সময় শুক্রবার সন্ধ্যায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে পরিবারের সদস্যরা তার মরদেহ নিয়ে রওনা হবেন।

একাত্তরের মুজিবনগর সরকারের মুখপত্র সাপ্তাহিক জয়বাংলার নির্বাহী সম্পাদকের মরদেহ সম্পূর্ণ রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থাপনায় দেশে পাঠানোর কথা এর আগে জানিয়েছিলেন যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের হাই কমিশনার সাঈদা মুনা তাসনিম।

সম্মিলিতি সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “শনিবার বেলা ১১টায় গাফফার চৌধুরীর মরদেহ বিমানবন্দরে নামবে। সেখান থেকে সরাসরি শহীদ মিনারে নেওয়া হবে; দুপুর ১টা থেকে ৩টা পর্যন্ত শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য রাখা হবে৷

“পরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মসজিদ ও প্রেসক্লাবে জানাজা শেষে মিরপুর বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে দাফন করা হবে।”

কয়েক মাস চিকিৎসাধীন থেকে গত ১৯ মে লন্ডনের একটি হাসপাতালে মারা যান ৮৮ বছর বয়সী গাফফার চৌধুরী। পরদিন শুক্রবার পূর্ব লন্ডনের ব্রিকলেইন মসজিদে তার প্রথম নামাজে জানাজা হয়।

এরপর পূর্ব লন্ডনের ঐতিহাসিক শহীদ আলতাব আলী পার্কের শহীদ মিনারে ব্রিটিশ-বাংলাদেশি কমিউনিটির সদস্যরা তার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। ২৩ মে গাফফার চৌধুরীর স্মরণে পূর্ব লন্ডনে এক মিলাদ মাহফিল ও শোকসভায় আয়োজন করে বাংলাদেশ হাই কমিশন।

আরও পড়ুন

গাফফার চৌধুরীর মরদেহ আসছে শনিবার  

আলতাব আলী পা‌র্কের শহীদ মিনারে একুশের গানের রচয়িতাকে শেষ বিদায়  

দেশে আনা হবে গাফফার চৌধুরীর মরদেহ, দাফন মিরপুরে  

গাফফার চৌধুরী: বাঁক বদলের সাক্ষী, এক গানেই কিংবদন্তি  

একুশের গানের রচয়িতা আবদুল গাফফার চৌধুরীর চিরবিদায়