ইউনিলিভার বিজমায়েস্ত্রোজ: এবারের চ্যাম্পিয়ন ‘দ্য ডিপেন্ডেবলস’

ইউনিলিভার বাংলাদেশের বিপণন ও বাজার সৃষ্টির উদ্ভাবনী প্রতিযোগিতা বিজমায়েস্ত্রোজের দ্বাদশ আসরে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের দল ‘দ্য ডিপেন্ডেবলস’।

গত মঙ্গলবার রাজধানীর র‌্যাডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেন হোটেলে প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্ব শেষে আনুষ্ঠানিকভাবে সেরাদের নাম ঘোষণা করা হয়।

প্রতিযোগিতায় প্রথম রানার আপ হয়েছে ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজির দল ‘কোড রেড’। এ দলের সব সদস্যই নারী, যারা ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়ছেন।

দ্বিতীয় রানার আপ হয়েছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএর দল ‘লেফ্টওভার পিৎজা’।

ইউনিলিভারের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এবারের প্রতিযোগিতার বিজয়ী দলের সদস্য তাহের সাব্বির মাহুওয়ালা, আবরার মাহির আহমেদ ও আফনান সাইদ যুক্তরাজ্যে অনুষ্ঠেয় ইউনিলিভারের বৈশ্বিক প্ল্যাটফর্ম ‘ফিউচার লিডারস লিগ (এফএলএল)- ২০২১’ এ বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করবেন।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ইউনিলিভারের আয়োজিত জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় বিজয়ী দলগুলোর সঙ্গে তারা ‘গ্লোবাল চ্যাম্পিয়নশিপ’ এর জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

এছাড়া ইউনিলিভারের প্রিমিয়ার ম্যানেজমেন্ট ট্রেইনি প্রোগ্রাম- ‘ইউনিলিভার ফিউচার লিডারস প্রোগ্রাম’ এ নিয়োগ পাওয়ার ক্ষেত্রেও অগ্রাধিকার পাবেন চ্যাম্পিয়ান দলের সদস্যরা।

এ বছর বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট ১১৩টি দল বিজমায়েস্ত্রোজ প্রতিযোগিতার প্রথম রাউন্ডে অংশ নেন। কঠোর মূল্যায়নের মাধ্যমে সেখান থেকে ৩০টি দল সেমি-ফাইনালে এবং মাত্র ছয়টি দল ফাইনাল রাউন্ডে জায়গা করে নেয়।

প্রতিযোগিতার শীর্ষ এই তিন দলকেই ইউনিলিভার লিডারশিপ ইন্টার্নশিপ প্রোগ্রামের আওতায় ‘ইন্টার্ন’ হওয়ার সুযোগ দেওয়া হবে।

এছাড়া প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় রাউন্ডে উত্তীর্ণ হওয়ার পর থেকে যারা ‘দারুণ’ সফলতা দেখিয়েছে, তারাও ইউনিলিভার বাংলাদেশের ‘ট্যালেন্ট পাইপলাইন’ এ অন্তর্ভুক্ত থেকে ভবিষ্যত নিয়োগের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাবেন বলে জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।

বার্জার পেইন্টস বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রূপালী চৌধুরী, অ্যাপেক্স ফুটওয়্যার লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ নাসিম মঞ্জুর, ইউনিলিভার বাংলাদেশ লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাভেদ আখতার, এবং ইউনিলিভার কনজ্যুমার কেয়ার লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) কেএসএম মিনহাজ এ প্রতিযোগিতার বিচারক প্যানেলে ছিলেন।

ইউনিলিভার বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জাভেদ আখতার বলেন, “বিজমায়েস্ত্রোজ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে আমরা আগামী দিনের ব্যবসায়িক নেতৃত্ব তৈরির প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশে ১০ লাখ দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলার ক্ষেত্রে ইউনিলিভার বাংলাদেশের প্রতিশ্রুতির সঙ্গে এ উদ্যোগটি ঘনিষ্ঠভাবে সম্পৃক্ত।”

তরুণদের মধ্যে ভবিষ্যতের নেতৃত্ব গুণ ও বিশ্লেষণাত্মক দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে গত ১৭ অক্টোবর শুরু হয় এবারের বিজমায়েস্ত্রোজ প্রতিযোগিতা।

তিন জনের দলে ভাগ হয়ে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক শেষ বর্ষের প্রায় ৩৪০ জন শিক্ষার্থী প্রথম রাউন্ডে অংশ নিয়ে বাস্তব ব্যবসার প্রকৃত সমস্যার সমাধানের চেষ্টা করেন।