আরও ১০ জেলায় হবে বিএসটিআইয়ের কার্যালয়: শিল্পমন্ত্রী

পণ্যের যথাযথ মান যাচাইয়ে আরও ১০ জেলায় বিএসটিআইয়ের কার্যালয় স্থাপন করার কথা জানিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন।

বিশ্ব মেট্রোলজি দিবস উপলক্ষে রোববার বিএসটিআইয়ের কার্যালয়ে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি একথা জানান।

মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ সভার বিষয়ে জানানো হয়।

এ জন্য শিল্প মন্ত্রণালয় প্রকল্প হাতে নিয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, পণ্যের সঠিক পরিমাপ এবং পণ্যের মান যাচাইয়ের সব ধরনের কারিগরি দক্ষতা বাড়াতে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড টেস্টিং ইন্সটিটিউটের (বিএসটিআই) এসব আঞ্চলিক কার্যালয় স্থাপন করা হবে।

গাজীপুর, নরসিংদী, গোপালগঞ্জ, যশোর, পটুয়াখালী, পাবনা, নোয়াখালী, দিনাজপুর, কুষ্টিয়া ও নওগাঁ জেলায় এসব কার্যালয় শিগগির চালু হবে বলে তিনি জানান।

এছাড়া আমদানি ও রপ্তানি বাণিজ্যে সহায়তার জন্য চট্টগ্রাম ও খুলনায় বিএসটিআই কার্যালয়কে আধুনিক ল্যাবরেটরিতে রূপান্তর করা হচ্ছে বলে জানান শিল্পমন্ত্রী।

গত ২০ মে ছিল বিশ্ব মেট্রোলজি দিবস। সঠিক ওজন ও পরিমাপের গুরুত্ব এবং এ বিষয়ে জনসচেতনতা বাড়াতে প্রতিবছর বিশ্বব্যাপী দিবসটি পালন করা হয়। দিবসের এবারের প্রতিপাদ্য ‘ডিজিটাল যুগে পরিমাপ’।

এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে অন্যান্য দেশের মত বাংলাদেশেও দিবসটি উদযাপন করা হচ্ছে।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, “ওজন ও পরিমাপ সংক্রান্ত কারিগরী ও ব্যবসায়িক সেবাসমূহ ডিজিটাল পদ্ধতিতে সংশ্লিষ্ট সকলের কাছে পৌঁছে দিতে বিএসটিআই অনেক দূর এগিয়ে গিয়েছে। শিল্প মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বিএসটিআইয়ের সক্ষমতা বৃদ্ধির কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছে।

“বিশ্বমানের ল্যাবরেটরি, ওয়ান স্টপ সার্ভিস চালু- ইতোমধ্যে এইসব বাস্তবায়ন হয়েছে। কয়েকটি জেলায় বিএসটিআইয়ের কার্যালয় স্থাপনের প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে”।

তিনি জানান, বিএসটিআইয়ের পদার্থ ও রসায়ন পরীক্ষণ ল্যাবরেটরি সম্প্রসারণের জন্য আরও ৬৮টি নতুন ল্যাব স্থাপন এবং বিদ্যমান ল্যাব আধুনিকায়নের জন্য প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।

দেশি পণ্যের রপ্তানি বাড়ানোর জন্য বিএসটিআই হালাল সার্টিফিকেট দেওয়া শুরু করেছে। পাশাপাশি ওজন ও পরিমাপের আধুনিক সেবা নিশ্চিতকরণে ২১টি নতুন ল্যাব স্থাপন ও বিদ্যমান ল্যাব আধুনিকায়ন এবং কর্মকর্তাদের দক্ষতা বাড়ানোর জন্য স্থায়ী অবকাঠামো সৃষ্টির প্রকল্প নেওয়া হয়েছে, যোগ করেন তিনি।

আলোচনা সভায় শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার, শিল্প সচিব জাকিয়া সুলতানা, এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি মো. জসিমউদ্দিন, বিএসটিআইয়ের মহাপরিচালক নজরুল আনোয়ার ও পরিচালক (মেট্রোলজি) সাজ্জাদুল বারী উপস্থিত ছিলেন।