দ্রাবিড়-ধাওয়ানের কাছ থেকে যা শিখল শ্রীলঙ্কা

মাঠের ক্রিকেটে দুই দলের লড়াই শেষ হয় সমতায়। ওয়ানডে সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতে নেয় ভারত, টি-টোয়েন্টি সিরিজে একই ব্যবধানে জয় শ্রীলঙ্কার। তবে ভারতের দ্বিতীয় সারির দলেরও ছিল বড় সম্পদ। রাহুল দ্রাবিড়ের মতো একজন কিংবদন্তি দলটির কোচ। দলের অধিনায়কও অভিজ্ঞ একজন, শিখর ধাওয়ান। এমন দুজনকে কাছে পেয়ে তাদের কাছ থেকে পরামর্শ নেওয়ার সুযোগ ছাড়েনি তারুণ্যে ঠাসা শ্রীলঙ্কা দল।

২২ গজে ক্রিকেটীয় লড়াইয়ের বাইরে শ্রীলঙ্কা-ভারতের এই সিরিজে সৌহার্দ্যের এমন ছোঁয়া দেখা গেছে নিয়মিতই। শ্রীলঙ্কার জাতীয় সঙ্গীত গেয়ে হার্দিক পান্ডিয়া ভাইরাল হয়ে যান সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। শ্রীলঙ্কার চামিকা করুনারত্নে তাকে ‘আইডল’ মানেন বলে উঠতি এই পেস বোলিং অলরাউন্ডারকে একটি ব্যাট উপহার দেন পান্ডিয়া।

সিরিজের সময় দ্রাবিড়কে দেখা গেছে লঙ্কান অধিনায়ক দাসুন শানাকার সঙ্গে একান্তে কথা বলতে। বৃহস্পতিবার তৃতীয় টি-টোয়েন্টির আগে শ্রীলঙ্কার গোটা স্কোয়াডের সঙ্গে কথা বলতে দেখা যায় শিখর ধাওয়ানকে।

ম্যাচের পর লঙ্কান অধিনায়ক শানাকা খোলাসা করলেন ধাওয়ানের সঙ্গে তাদের কথোপকথনের বিষযবস্তু।

“শিখর এমন একজন ক্রিকেটার, যে ১০ বছর ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছে এবং অনেক অভিজ্ঞতা আছে। তিনি বলেছেন মূলত ম্যাচ পরিকল্পনা ও পরিস্থিতি সামলানোর ব্যাপারগুলি নিয়ে, যেগুলো আমাদের জন্য সবার জন্য গুরুত্বপূর্ণ; অধিনায়ক হিসেবে আমার জন্য যেমন, বাকি দলের জন্যও।”

শানাকা জানালেন, ধাওয়ানের সঙ্গে সময় কাটানোর ভাবনাটা কেন এসেছিল তার।

“তিনি এমন একজন, যে কিনা নিজের মতো শ্বাস নেওয়ার ধরনও রপ্ত করেছেন। আমার মনে হয়েছিল, তার মতো একজনের সঙ্গে কথা বললে আমাদের ক্রিকেটারদের একটু ধারণা হবে, কীভাবে নিজের খেলার মান বাড়ানো যায়।”

“অবশ্যই আমরা আমাদের সাবেক ক্রিকেটারদের কাছ থেকেও পরামর্শ পাই। তবে এটা ছিল এখনকার একজন অনেক অভিজ্ঞ ক্রিকেটারের কথা শোনার সুযোগ। আমরা তার কাছে কৃতজ্ঞ তিনি সময় দেওয়ায়।”

রাহুল দ্রাবিড়ের সঙ্গে দাসুন শানাকার কথোপকথন। ছবি: ভিডিও থেকে।

দ্রাবিড়ের সঙ্গে আলোচনার কিছুটা নিয়েও ধারণা দিলেন শানাকা।

“দ্রাবিড়ের সঙ্গে আমি কথা বলেছি কীভাবে ভারতীয় ক্রিকেটাররা তাদের ইনিংস গড়ে। মাঠে যাওয়ার পর থেকেই তারা খুব ইতিবাচক থাকে। এছাড়াও অনেক প্রশ্ন তাকে করেছি আমি। শিখরকেও এমন অনেক প্রশ্ন করেছি আমরা।”