শুরুর খরুচে বোলিংয়ে মুস্তাফিজদের হার

মুস্তাফিজুর রহমান। ছবি: আইপিএল
প্রথমে খরুচে ওভারে। মাঝে চমৎকার বোলিংয়ে মিলল উইকেট। শেষটায় আবার কিছুটা খরুচে। মুস্তাফিজুর রহমানের স্পেলেই মিলছে রাজস্থানের রয়্যালসের বোলিংয়ের চিত্র। ইনিংসের প্রথম ১২ ওভারে অনেক রান বিলিয়ে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে হেরে গেছে দলটি।

রাজস্থানের ১৬৪ রান তাড়ায় হায়দরাবাদ জিতেছে ৩ উইকেট ও ৯ বল হাতে রেখে।

৩.৩ ওভারে ২৬ রান দিয়ে ১ উইকেট নেন মুস্তাফিজ। রাজস্থানের হয়ে ওভারপ্রতি তার চেয়ে কম রান দিয়েছেন কেবল মাহিপাল লোমরোর।

দলের হয়ে সবচেয়ে বেশি ১১টি ডট বল খেলানো মুস্তাফিজ হজম করেছেন পাঁচটি চার। প্রথম ওভারে দুটি, শেষ ওভারে ৩ বলের মধ্য দুটি। মাঝের দুই ওভার মিলিয়ে কেবল একটি।

চতুর্থ ওভারে বল হাতে পান মুস্তাফিজ। হায়দরাবাদের হয়ে অভিষেকে বাঁহাতি এই পেসারকেই তিন বলের মধ্যে দুই চার মেরে ডানা মেলেন জেসন রয়। মাঝে বাই থেকে আসে আরেকটি চার। নিজের প্রথম ওভারে বাংলাদেশের বাঁহাতি পেসার দেন ৯ রান।

ত্রয়োদশ ওভারে ফিরে ৫ রান দিয়ে একটি উইকেট পান মুস্তাফিজ। কাটারে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে গোল্ডেন ডাকের তেতো স্বাদ পান প্রিয়ম গার্গ।

জয়ের জন্য শেষ ৪ ওভারে হায়দরাবাদের প্রয়োজন ছিল ২৬ রান। ১৭তম ওভারে একটি ওয়াইডসহ ৪ রান দিয়ে রাজস্থানকে লড়াইয়ে রাখেন মুস্তাফিজ।

শেষ দুই ওভারে প্রয়োজন ছিল কেবল ৬ রান। ১৯তম ওভারে মুস্তাফিজের প্রথম বলটি ডট খেলা কেন উইলিয়ামসন টানা দুই চার মেরে ম্যাচ শেষ করে দেন। হায়দরাবাদ অধিনায়ক অপরাজিত থাকেন ৫১ রানে। ৪২ বলে ৮ চার ও ১ ছক্কায় ৬০ রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেলেন ইংলিশ ওপেনার রয়।

এর আগে প্রায় একার লড়াইয়ে দলকে দেড়শ ছাড়ানো সংগ্রহ এনে দেন সাঞ্জু স্যামসন। তিন ছক্কা ও সাত চারে রাজস্থান অধিনায়ক করেন ৮২।