হার দিয়ে শুরু যুবাদের শিরোপা ধরে রাখার অভিযান

ইংলিশ বোলিংয়ের বিপক্ষে কোনো জবাবই যেন ছিল না বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে একশ রানও করতে পারল না যুব বিশ্বকাপের গতবারের চ্যাম্পিয়নরা। পরে ছোট্ট পুঁজি নিয়ে বোলাররা চেষ্টা করলেও এড়াতে পারেনি হার।

সেন্ট কিটসে রোববার ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচে ইংল্যান্ডের জয় ৭ উইকেটে। প্রতিপক্ষের ৯৭ রান ২৪.৫ ওভার আগেই পেরিয়ে গেছে তারা।

আসরে প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমে ৫১ রানে ৯ উইকেট হারিয়ে বসে বাংলাদেশ। শেষ উইকেটে রিপন মণ্ডল ও নাইমুর রহমানের ৪৬ রানের জুটিতে একশর কাছে সংগ্রহ পায় তারা। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে নেমে দলের সর্বোচ্চ ৩৩ রান করে অপরাজিত থাকেন রিপন। আর কেউ ছুঁতে পারেননি ১৫ রানও।

বাংলাদেশের ইনিংস অল্পতে গুঁড়িয়ে দেওয়ার কারিগর জশুয়া বয়ডেন ১৬ রান দিয়ে ৪ উইকেট নেন। এই পেসারের হাতেই ওঠে ম্যাচ সেরার পুরস্কার। দুই উইকেট প্রাপ্তি টমাস অ্যাস্পিনওয়ালের।

লক্ষ্য তাড়ায় দ্রুত দুই উইকেট হারানো ইংল্যান্ড জ্যাকব বেথেল ও জেমস রিউয়ের জুটিতে পৌঁছে যায় জয়ের কাছে। বেথেল ৪৪ রান করে ফিরলেও রিউ ২৬ রানে দলের জয় সঙ্গে নিয়ে মাঠ ছাড়েন।

ওয়ার্নার পার্কের ঘাসের ছোঁয়া থাকা উইকেটে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে মাহফিজুল ইসলাম ও আরিফুল ইসলাম শুরুটা সাবধানী করলেও টিকতে পারেননি। বয়ডেনের অফ স্টাম্পের বেশ বাইরের বল তাড়া করে কট বিহাইন্ড হন মাহফিজুল। নিজের পরের ওভারেই এই পেসার ফিরিয়ে দেন আরিফুলকে।

এরপর কেবলই ব্যাটসম্যানদের আসা-যাওয়ার পালা। ১০ উইকেটের ছয়টি আউট উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে।

একেবারে শেষে নেমে দারুণ কিছু শট খেলে দলের স্কোর একশ পার করার আশা জাগান রিপন। আরেক প্রান্তে নাইমুর কেবল সঙ্গ দিয়ে যান।

টম প্রেস্টের শর্ট বল পেয়ে পুল করেন নাইমুর। মিডউইকেটে ঝাঁপিয়ে পড়ে দুর্দান্ত এক ক্যাচে বাংলাদেশের ইনিংস শেষ করে দেন রিউ।  

জবাব দিতে নামা ইংল্যান্ড শিবিরে নবম ওভারে আঘাত হানে বাংলাদেশ। রিপনের শর্ট বল পুল করে আকাশে তুলে দেন জর্জ থমাস, মিডউইকেটে সহজ ক্যাচ নেন আইচ মোল্লা।

বাংলাদেশ অধিনায়ক রকিবুল হাসান ফেরান ইংলিশ অধিনায়ক টম প্রেস্টকে। রকিবুলের বাঁহাতি স্পিন কাট করতে গিয়ে কিপারের গ্লাভসে ধরা পড়েন প্রেস্ট।

২৬ রানে ২ উইকেট হারানো ইংল্যান্ডকে জয়ের দিকে এগিয়ে নেন বেথেল ও রিউ। দুইজনে গড়েন ৬৫ রানের জুটি। যেখানে অগ্রণী বেথেল ২ ছক্কা ও ৪ চারে ৪৪ রান করে কাটা পড়েন রান আউটে।

এক ছক্কা ৩ চারে ২৬ করে অপরাজিত থাকেন রিউ। শেষে ব্যাটিংয়ে নেমে এক বল খেলে নাইমুর রহমানকে ছক্কায় ওড়ান উইলিয়াম লুক্সটন।

আগামী বৃহস্পতিবার কানাডার বিপক্ষে লড়বে যুবারা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ: ৩৫.৩ ওভারে ৯৭ (মাহফিজুল ৩, আরিফুল ৪, নাবিল ০, আইচ ১৩, ফাহিম ১, আশিকুর ৯, মামুন ৪, মেহরব ১৪, রকিবুল ০, নাইমুর ১১, রিপন ৩৩*; বয়ডেন ৯-৪-১৬-৪, সেলস ৯-২-২৯-১, ফাতেহ ৬-০-২৯-১, অ্যাস্পিনওয়াল ৮-১-১৮-২, প্রেস্ট ২.২-১-৫-১, বেথেল ১-১-০-০)

ইংল্যান্ড: ২৫.১ ওভারে ৯৮/৩ (থমাস ১৫, বেথেল ৪৪, প্রেস্ট ৪, রিউ ২৬*, লুক্সটন ৬*; আশিকুর ৪-৩-৪-০, মেহরব ৬-২-২৫-০, রকিবুল ৪-১-১৩-১, রিপন ৬-১-২৩-১, আরিফুল ২.১-০-১১-০, নাইমুর ৩-০-২২-০)

ফল: ইংল্যান্ড ৭ উইকেটে জয়ী

ম্যান অব দা ম্যাচ: জশুয়া বয়ডেন