২২৯ ও ২১২ রান গ্রহণযোগ্য নয়: পোলার্ড

তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়েছে আয়ারল্যান্ড। ছবি: সিডব্লিউআই।
প্রথম ওয়ানডেতে আড়াইশ ছাড়ানো পুঁজি নিয়ে জয়ের জন্য বেগ পেতে হয়েছিল বেশ। পরের দুই ম্যাচে তো ওই রানের ধারেকাছেও যেতে পারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ফলে পেতে হয় হারের তেতো স্বাদ। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো দ্বিপাক্ষিক সিরিজে হার যেন মানতেই পারছেন না কাইরন পোলার্ড। ঘরের মাঠে এমন দুর্দশার দায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক দিলেন ব্যাটসম্যানদের।

ক্যারিবিয়ানে রোববার শেষ হওয়া তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজটি ২-১ ব্যবধানে জিতে নতুন ইতিহাস গড়ে আইরিশরা।

সিরিজ শুরুর ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজ জিতলেও ওই লড়াইয়েও ব্যাটিং খুব একটা ভালো হয়নি তাদের। খেলতে পারেনি পুরো ওভারও। ২৬৯ রানে গুটিয়ে যায় ৪৮.৫ ওভারে। পরে বোলারদের সৌজন্যে প্রতিপক্ষকে তারা অলআউট করে দেয় ২৪৫ রানে, জয় পায় ২৪ রানের।

এগিয়ে থেকে দ্বিতীয় ম্যাচে খেলতে নেমে আরও খারাপ করে ক্যারিবিয়ানরা। ৪৮ ওভারে তাদেরকে ২২৯ রানে গুঁড়িয়ে দেয় আয়ারল্যান্ড। পরে বৃষ্টির বাধায় ৩৬ ওভারে ১৬৮ রানের নতুন লক্ষ্য সফরকারীরা ছুঁয়ে ফেলে ৫ উইকেটে, ২১ বল বাকি থাকতে।

তৃতীয় ওয়ানডেতে তো স্বাগতিকদের ব্যাটিংয়ের দশা ছিল আরও করুণ। ২১২ রানে গুটিয়ে গিয়ে ৩১ বল আগে হেরে যায় তারা ২ উইকেটে। ম্যাচ শেষে পোলার্ডের কণ্ঠে ঝরে শুধু হতাশা। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে এত অল্প রান তার কাছে কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

“আমি নির্বিঘ্নে বলতে পারি, এটা (আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ হার) অনেক কষ্টের, খুব বেশিই কষ্ট হচ্ছে। এখানে লুকানোর কিছু নেই। আমরা যেভাবে খেলেছি, তা হতাশাজনক। পুরো সিরিজ জুড়ে যেভাবে ব্যাটিং করেছি, তা হতাশার। আমাদের হারের এটাই প্রধান কারণ।”

“দলের খাতায় পর্যাপ্ত রান আমরা যোগ করতে পারিনি। একটি ম্যাচে আমরা ২৬৯ করেছিলাম, যেটা জিততে পেরেছিলাম। কিন্তু ২২৯ ও ২১২ রান আন্তর্জাতিক পর্যায়ে এসে একদমই অগ্রহণযোগ্য।”