শ্রীলঙ্কা সিরিজ দিয়ে ফেরার আশায় হেইজেলউড

ছবি: আইসিসি।
সাইড স্ট্রেইন চোট থেকে সেরে উঠছেন জশ হেইজেলউড। আগামী মাসেই শ্রীলঙ্কা সিরিজ দিয়ে মাঠে ফেরার আশায় আছেন অস্ট্রেলিয়ান এই পেসার।

গত সপ্তাহে শেষ হওয়া অ্যাশেজে সিরিজে কেবল একটি ম্যাচ খেলতে পারেন হেইজেলউড। ব্রিজবেনে প্রথম টেস্টের তৃতীয় দিন চোট পাওয়ার পর আর ফেরা হয়নি তার। ঘরে বসে টিভিতে দেখেছেন সতীর্থদের সিরিজ জয়ের উল্লাস।

আগামী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সূচি প্রকাশের দিন শুক্রবার হেইজেলউড বললেন, তার জন্য কঠিন ছিল সেই সময়টি।

“দেশের বাকিদের সঙ্গে দূর থেকে টিভিতে খেলা দেখা, কোনো সন্দেহ নেই যে সেই কয়েকটি সপ্তাহ ছিল খুবই হতাশাজনক। তবে ছেলেরা দারুণ খেলেছে।”

চলতি মাসের শেষ দিকে ঘরের মাঠে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার সীমিত ওভারের সিরিজ শুরু হওয়ার কথা ছিল। হেইজেলউড তাকিয়ে ছিলেন ওই সিরিজে। কিন্তু সফর শেষে দেশে ফিরে নিউ জিল্যান্ড দলের কোয়ারেন্টিন নিয়ে অনিশ্চয়তায় স্থগিত করে দেওয়া হয় সিরিজটি।

সিদ্ধান্তটি অবশ্য একদিক থেকে ভালোই হয়েছে হেইজেলউডের জন্য। এখন লঙ্কানদের বিপক্ষে পাঁচ টি-টোয়েন্টির সিরিজটিতে তার খেলা প্রায় নিশ্চিত।

“নিশ্চিতভাবে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়ে ফেরার আশা করছি। নিউ জিল্যান্ড আসছে না, বিধায় এখন আমার জন্য সবকিছু একটু সহজ হয়েছে। তৈরি হতে আরও কয়েক সপ্তাহ সময় পাচ্ছি।”

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি। পরের চারটি ম্যাচ ১৩, ১৫, ১৮ ও ২০ ফেব্রুয়ারি। এরপর পাকিস্তানে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে যাওয়ার কথা রয়েছে তাদের। ওই সফরের মাঝেই রয়েছে নিউ জিল্যান্ডে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। বছরের মাঝামাঝিতে শ্রীলঙ্কা সফরও রয়েছে দলটির। অক্টোবরে শুরু টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ।

এমন ঠাসা সূচিতে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে সব ম্যাচ খেলা সম্ভব হবে বলে মনে করছেন না হেইজেলউড।

“অস্ট্রেলিয়ার হয়ে সব ম্যাচ খেলা প্রায় অসম্ভব। সাদা বলের তুলনায় লাল বলের ওপর অগ্রাধিকার দেওয়া হবে নাকি উল্টোটা, নির্ভর করবে শরীরের ওপর।”