হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে বিশ্রামে ফ্লেচার

বলের আঘাতে তখনই উইকেটে পড়ে যান আন্দ্রে ফ্লেচার। ছবি: বিসিবি।
বলের আঘাতে মাঠ ছেড়ে যাওয়া ব্যাটসম্যান আন্দ্রে ফ্লেচারের চোট গুরুতর নয়। তার স্ক্যান রিপোর্ট ভালো এসেছে। হাসপাতাল থেকে ছাড়াও পেয়েছেন। তবে সতর্কতা হিসেবে ৪৮ ঘণ্টার বিশ্রামে থাকতে হবে খুলনা টাইগার্সের ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্যানকে।

বিপিএলে সোমবার চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে ম্যাচে ব্যাটিংয়ের সময় কাঁধে চোট পান ফ্লেচার। পরে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

খুলনার ম্যানেজার ও সাবেক জাতীয় ক্রিকেটার নাফিস ইকবাল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে মঙ্গলবার সকালে জানান, ফ্লেচার এখন বিপদমুক্ত।

“ফ্লেচারের এমআরই রিপোর্ট ভালো এসেছে। অর্থোপেডিক ও নিউরো চিকিৎসকরা বলেছেন আর কোনো শঙ্কা নেই। হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে তাকে। আগামী ৪৮ ঘণ্টা তাকে বিশ্রামে থাকতে হবে।”

খুলনার পরের ম্যাচ শুক্রবার চট্টগ্রামে। আপাতত তাই কোনো ম্যাচ বাইরেও থাকতে হচ্ছে না আগ্রাসী এই ব্যাটসম্যানকে।

ফ্লেচার এই চোট পান সোমবার দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে। খুলনার রান তাড়ায় সপ্তম ওভারে রেজাউর রহমান রাজার বলটি ছিল শর্ট। পিচ করার পর বলটি স্কিড করে একটু বাড়তি লাফিয়ে ওঠে। ফ্লেচার পুল করার চেষ্টায় বলের লাইন মিস করে বসেন। বল আঘাত করে তার হেলমেটের নিচে।

তখনই উইকেটে পড়ে যান ফ্লেচার। হাঁটু গেড়ে বসে থাকেন কিছুক্ষণ। একটু পরই তাকে দেখা যায় উইকেটে শুয়ে পড়তে। যন্ত্রণার ছাপ ছিল তার ভঙ্গিতে।

খুলনার চিকিৎসক দল তখনই মাঠে ঢুকে প্রাথমিক সেবা দেন। একটু পর স্ট্রেচারে করে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় মাঠের বাইরে।

ফ্লেচার তখন খেলছিলেন ১২ বলে ১৬ রান করে। 

তখন মনে হচ্ছিল, ফ্লেচারের গলায় বা ঘাড়ে লেগেছে বল। পরে খুলনা দলের পক্ষ থেকে নিশ্চিত করা হয়, বল লেগেছে কাঁধে।

ফ্লেচার ম্যাচ থেকে ছিটকে যাওয়ার পর খুলনা তার কনকাশন বদলি হিসেবে একাদশে নেয় সিকান্দার রাজাকে। বিপিএলের প্রথম কনকাশন বদলি জিম্বাবুয়ের এই অলরাউন্ডার।