ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ে পাঁচে ডি কক, দশে ফন ডাসেন

ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে ব্যাট হাতে দারুণ পারফরম্যান্সের পুরস্কার পেয়েছেন রাসি ফন ডার ডাসেন ও কুইন্টন ডি কক। কিপার-ব্যাটসম্যান ডি কক ফিরেছেন শীর্ষ পাঁচে। প্রথমবার সেরা দশে জায়গা করে নিয়েছেন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান ফন ডার ডাসেন।  

সদ্যসমাপ্ত দক্ষিণ আফ্রিকা-ভারতের তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে সর্বোচ্চ রান করে সিরিজ সেরা হন ডি কক। শেষ ম্যাচে সেঞ্চুরিসহ ৭৬.৩৩ গড়ে করেন ২২৯ রান। তাতে র‌্যাঙ্কিংয়ে চার ধাপ এগিয়ে উঠে আসেন তিনি পাঁচ নম্বরে। তার সেরা অবস্থান তিন নম্বর, ২০১৬ সালে।

সিরিজে ফন ডাসেনও সেঞ্চুরি করেন একটি। ২১৮ রান সিরিজের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্কোরার ১০ ধাপ এগিয়ে এখন আছেন ঠিক ১০ নম্বরে। ৩২ বছর বয়সী ব্যাটসম্যানের আগের সেরা অবস্থান ছিল ১৮, গত সেপ্টেম্বরে।      

ডি কক ও ফস ডার ডাসেনের অধিনায়ক টেম্বা বাভুমা বড় লাফ দিয়েছেন র‌্যাঙ্কিংয়ে। ২১ ধাপ এগিয়ে তিনি এখন ৫৯তম স্থানে। ভারতের বিপক্ষে সিরিজে একটি সেঞ্চুরিতে ৫১ গড়ে তার রান ১৫৩।

ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষ দুটি স্থানে আগের মতোই আছেন বাবর আজম ও বিরাট কোহলি। চোটের কারণে দক্ষিণ আফ্রিকায় খেলতে না পারা রোহিত শর্মা তিন থেকে চারে নেমে গেছেন। এই সুযোগে তিনে উঠেছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায়ের কাছাকাছি থাকা রস টেইলর।

বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার লুঙ্গি এনগিডি ও কেশভ মহারাজের। সিরিজে ৫ উইকেট নেওয়া পেসার এনগিডি চার ধাপ এগিয়ে ২০তম স্থানে আছেন। সিরিজে কোহলিকে দুইবার আউট করা বাঁহাতি স্পিনার মহারাজ ১৮ ধাপ এগিয়ে আছেন ৩৩তম স্থানে। দুই ম্যাচ খেলে উইকেটশূন্য থাকা ভারতীয় পেসার ভুবনেশ্বর কুমার চার ধাপ পিছিয়ে ২২তম স্থানে নেমে গেছেন।

বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষ দুটি স্থানে আছেন নিউ জিল্যান্ডের ট্রেন্ট বোল্ট ও অস্ট্রেলিয়ার জশ হেইজেলউড।

অলরাউন্ডারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে তিন ধাপ এগিয়ে ১৫তম স্থানে আছেন সিরিজে সর্বোচ্চ ৬ উইকেট নেওয়া আন্দিলে ফেলুকওয়ায়ো। ওয়ানডে অলরাউন্ডারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার কারও সেরা অবস্থান এটিই।

র‌্যাঙ্কিংয়ের এই সপ্তাহের হালনাগাদের আওতায় ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ইংল্যান্ড সিরিজের প্রথম দুই টি-টোয়েন্টিও। প্রথম দুই ম্যাচে খেলতে না পারা ইংলিশ ব্যাটসম্যান দাভিদ মালান তিন ধাপ পিছিয়ে নেমে গেছেন চারে। তিন ধাপ পিছিয়ে সেরা দশের বাইরে চলে গেছেন জস বাটলার (১১তম)। 

বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে এক ধাপ এগিয়ে অ্যাডাম জ্যাম্পার সঙ্গে যৌথভাবে তিনে আছেন আদিল রশিদ। ইংলিশ লেগ স্পিনার প্রথম দুই ম্যাচে নেন ৩ উইকেট। সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৪ উইকেট নেওয়া ওয়েস্ট ইন্ডিজের জেসন হোল্ডার ৪৯ ধাপ এগিয়ে ২৬তম স্থানে আছেন।

টি-টোয়েন্টি বোলারদের শীর্ষে আছেন যথারীতি শ্রীলঙ্কার ভানিন্দু হাসারাঙ্গা।

অলরাউন্ডারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি হয়েছে ইংল্যান্ডের মইন আলির। চার ধাপ এগিয়ে তিনি আছেন পাঁচ নম্বরে। দ্বিতীয় ম্যাচে বোলিংয়ে ৩ উইকেট নেওয়ার পাশাপাশি ব্যাট হাতে ২১ বলে ৩৪ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। এখানে শীর্ষে আগের মতোই আফগান অলরাউন্ডার মোহাম্মদ নবি।