প্রথম দিনে দুই দলকে সমতায় দেখছেন হেরাথ

সারা দিনে কেবল চারটি উইকেট নিতে পেরেছে বাংলাদেশ। ক্রিজে সেঞ্চুরি করে অপরাজিত অ‍্যাঞ্জেলো ম‍্যাথিউস, তাকে দারুণ সঙ্গ দেওয়া দিনেশ চান্দিমাল এগিয়ে যাচ্ছেন ফিফটির দিকে। তাদের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে ম‍্যাচে একটু এগিয়েই শ্রীলঙ্কা। তবে বাংলাদেশের স্পিন বোলিং কোচ রঙ্গনা হেরাথ দুই দলকে দেখছেন সমতায়।  

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে রোববার নিখাদ ব‍্যাটিং উইকেটে ৪ উইকেটে ২৫৮ রান করে শ্রীলঙ্কা। ১১৪ রানে ব‍্যাট করছেন ম‍্যাথিউস। দিনেশ চান্দিমাল খেলছেন ৩৪ রানে। 

তৃতীয় সেশনের শুরুতেই কুসল মেন্ডিসকে ফেরানোর পর ধনাঞ্জয়া ডি সিলভাকে দ্রুত বিদায় করে প্রায় সমান-সমান জায়গায় চলে এসেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু বাকি সময়ে চান্দিমালকে নিয়ে অবিচ্ছিন্ন ৭৫ রানের জুটিতে দলকে বড় সংগ্রহের ভিত গড়ে দেন ম‍্যাথিউস।

উইকেট কম হারালেও শ্রীলঙ্কা খুব দ্রুত রান তুলতে পারেনি। এক পর্যায়ে সাড়ে তিন করে রান করলেও সাকিব আল হাসান ও তাইজুল ইসলামের বোলিংয়ে সেটা নেমে আসে তিনের নিচে।

প্রথম দিনের খেলা শেষে বাংলাদেশের প্রতিনিধি হয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসা হেরাথ বলেন, তার চোখে এগিয়ে নেই কেউ।

“প্রায় সম পর্যায়ের পারফরম‍্যান্স। কিছু কৃতিত্ব দিতে হবে শ্রীলঙ্কাকে, বিশেষ করে দারুণ এক সেঞ্চুরি করা অ‍্যাঞ্জেলো ম‍্যাথিউসকে। ওরা ভালো ব‍্যাটিং করেছে, আমরাও ভালো বোলিং করেছি।”

মাথা খাটিয়ে বোলিংয়ে শ্রীলঙ্কানদের ভোগাতে পারেন কেবল সাকিব। কখনও কখনও ধারাবাহিক ছিলেন না তাইজুল। শুরুতে দুই উইকেট নেওয়ার পর আলগা বোলিংয়ে রান দেন নাঈম হাসান। তবে তিন জনই পেলেন কোচের প্রশংসা।

“টেস্ট ম‍্যাচের প্রথম দিন হিসেবে ওরা যেভাবে বোলিং করেছে তাতে আমি খুশি। সাকিব আর টিজে (তাইজুল) ভালো বোলিং করেছে। নাঈমও দুইটা উইকেট পেয়েছে। গত ১৮ মাসে সে খুব বেশি ক্রিকেট খেলেনি তবে এই সময়ে প্রচুর অনুশীলন করে গেছে। এদিক থেকে আমার মনে হয়েছিল, ওর কিছুটা আত্মবিশ্বাস প্রয়োজন। প্রথম বলেই উইকেট পাওয়ায় ওর আত্মবিশ্বাস ফিরে আসে।”