লম্বা আইপিএলের পর এখনই টেস্ট খেলতে ‘চান না’ মুস্তাফিজ

আইপিএল থেকে ফিরে টেস্ট জার্সি গায়ে চাপানোর চেয়ে বিশ্রাম চান মুস্তাফিজ।
ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে মুস্তাফিজুর রহমানকে টেস্ট স্কোয়াডে রাখতে চায় বিসিবি। তবে আইপিএল খেলতে লম্বা সময় ধরে দেশের বাইরে থাকায় এই সিরিজেই টেস্টে ফেরার ইচ্ছে নেই বাঁহাতি এই পেসারের। বোর্ড এখন মুস্তাফিজের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানার অপেক্ষায়। শনিবার রাতেই আইপিএলের ম্যাচ শেষে সিদ্ধান্ত জানানোর কথা তার। আনুষ্ঠানিকভাবে সিদ্ধান্ত জানা যাবে রোববার।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন জানান, মুস্তাফিজের সঙ্গে তারা নিয়মিত আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন টেস্টে ফেরা নিয়ে।

“আজকে সকালেও ওর সঙ্গে কথা হয়েছে আমার। তখনও সিদ্ধান্ত পুরোপুরি নিতে পারছিল না। আজকে দিল্লির ম্যাচ আছে আইপিএলে। খেলা শেষে আরেক দফায় কথা বলব। কালকে আপনারা জানতে পারবেন, আশা করি সকালেই।”

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের জন্য বাংলাদেশের দল ঘোষণা করা হবে রোববার। বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান জালাল ইউনুস বিসিবিতে শনিবার সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জানান, এই সফরে লাল বলে মুস্তাফিজকে প্রবলভাবেই চান তারা।

“এটা তো পরিষ্কার যে আমরা চাচ্ছি মুস্তাফিজ টেস্ট খেলুক, অন্তত ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে। আমরা তাকে ব্ল্যাক অ্যান্ড হোয়াইট জানিয়েছি যে ‘আমরা তোমাকে চাই’, দেখা যাক সে কী বলে। এটা কালকের মধ্যে পরিষ্কার হয়ে যাবে। আপনারা কালকে দল পাবেন। তখনই বুঝতে পারবেন।”

অনেক দিন ধরেই লাল বলের ক্রিকেটের ধারেকাছে নেই মুস্তাফিজ। বিসিবির লাল বলের কেন্দ্রীয় চুক্তিতেও গত দুইবার তিনি সই করেননি। ৭ বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে টেস্ট খেলেছেন স্রেফ ১৪টি। সবশেষ টেস্ট খেলেছেন তিনি গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে। গত সাড়ে তিন বছরে টেস্ট খেলেছেন স্রেফ দুটি। টেস্টের বাইরে গত ৫ বছরে স্রেফ ৬টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলেছেন তিনি।

গত দুই বছরে বাংলাদেশের টেস্ট পরিকল্পনায়ও রাখা হয়নি তাকে। তবে এবার ওয়েস্ট ইন্ডিজে চোটের কারণে তাসকিন আহমেদ ও শরিফুল ইসলামকে পাচ্ছে না দল। এ কারণেই মুস্তাফিজকে ফেরাতে এত তোড়জোর, বলছেন ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান।

“আমরা বলেছি তাকে খেলতে। মুস্তাফিজ তো চাচ্ছিল না খেলতে। আমরা তাকে খেলতে বলেছি, কারণ আমাদের দুজন ফ্রন্ট লাইন বোলার নেই। গুরুত্বপূর্ণ দুজন বোলার নেই। আমরা মনে করি, মুস্তাফিজের সার্ভিস গুরুত্বপূর্ণ এখানে। আমরা তাকে জানিয়েছি, সে নির্বাচকদের জানিয়েছে। কালকে দল দিলে বুঝতে পারবেন।”

আইপিএলে খেলার জন্য প্রায় দুই মাস ধরে ভারতে আছেন মুস্তাফিজ। এর আগে বাংলাদেশ দলের হয়ে তিনি ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে টেস্ট না খেলতে চাওয়ার পেছনে এই কারণই মুস্তাফিজ দেখিয়েছেন বলে জানান জালাল ইউনুস।

“সে বলছে যে সে দুই মাস ধরে ওখানে (আইপিএলে) আছে, অনেক দিন ধরে বাইরে আছে। সে বলছে যে লম্বা একটা সময় চলে যাচ্ছে। সে বলতে পারে যে শারীরিকভাবেও ফিট নয়। আমরা বলেছি যে ‘তুমি আসো, দেখা যাবে, কী করা যায়।’ মনে হচ্ছে সে খেলতে পারবে, কালকে জানাব আমরা।”

বিসিবির লাল বলের চুক্তিতে সই না করার পেছনে মুস্তাফিজ কারণ দেখিয়েছিলেন কোভিড মহামারীর সময়ে জৈব সুরক্ষা বলয়ের জীবন। এখন আর তা নেই। তার চোটপ্রবণ শরীর অবশ্য নিয়মিত টেস্ট খেলার পথে বড় একটি দুর্ভাবনা। এটিও বিবেচনায় নেওয়া হবে, নিশ্চিত করলেন ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান।

“যখন তিনটি ফরম্যটের কথা জানতে চেয়েছিলাম, সে দুটি ফরম্যাটের কথা বলেছে (খেলার ইচ্ছে)। টেস্টে এটা বলেছে যে, বায়ো বাবল না থাকলে তাকে পাওয়া যাবে। এখন আর বায়ো বাবল নেই। তবে ফাস্ট বোলার যারা আছে, সবাই চোটপ্রবণ একটু। আমরা চাইব ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খেলানোর জন্য। দেখা যাচ্ছে যে খুব ঘনঘন ইনজুরি হচ্ছে।”

“এবার আইপিএলে তো খুব বেশি ম্যাচ সে খেলেনি। ৮টি ম্যাচ খেলেছে। বিশ্রাম কিছুটা ওখানে পেয়েছে। আমরা বলছি না যে ভবিষ্যতে মুস্তাফিজ সব টেস্টই খেলবে। যখন আমাদের মনে হবে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খেলানোর দরকার, তখন আমরা তাকে খেলাব।”

আগামী ৫ জুন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে যাওয়ার কথা বাংলাদেশ দলের। টেস্ট সিরিজ শুরু ১৬ জুন।