‘খুন করে পালিয়ে’ মাটি কাটা শ্রমিকের ছদ্মবেশ

চট্টগ্রামে হত্যা মামলার এক আসামি গ্রেপ্তার হয়েছেন, যিনি পরিচয় গোপন করতে মাটি কাটা শ্রমিকের ছদ্মবেশ নিয়েছিলেন বলে দাবি করছে পুলিশ।

হত্যার ঘটনার একবছরের বেশি সময় পর শুক্রবার রাতে পটিয়ার হুলাইন এলাকা থেকে এমদাদুল হক আকাশ (২২) নামের আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গত বছর এপ্রিলে চট্টগ্রাম নগরীর বাকলিয়ার খালপাড় কিশোরদের বিরোধে বড়রা জড়িয়ে লোকমান নামে এক যুবককে  গুলি করে হত্যা করে।

এই হত্যাকাণ্ডের প্রধান আসামি সাইফুল ইসলাম পুলিশ হেফাজতে ‘অস্ত্র উদ্ধার অভিযানে’ কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছিলেন।

বাকলিয়া থানার ওসি নেজাম উদ্দিন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, আকাশ সাইফুলের অন্যতম সহযোগী ছিলেন। লোকমান হত্যার ঘটনাকে ভিন্ন খাতে নিতে ‘সে (আকাশ) পানি ঢেলে রক্ত পরিষ্কার’ করেছিল।

“হত্যাকাণ্ডের পর আকাশ পালিয়ে পটিয়ায় চলে যায়। হুলাইন এলাকায় সে আলম নামে তার স্ত্রীর এক চাচাত ভাইয়ের জন্মসনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করে বাসা ভাড়া নেয়। সে মাটি কাটার কাজও করত।”