চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় ৩ চিতা বিড়ালশাবকের জন্ম

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় ‘ক্যাপটিভ ব্রিডিং’ পদ্ধতিতে তিনটি শাবক প্রসব করেছে চিতা বিড়াল, যাকে দেশে প্রথম বলছেন ডেপুটি কিউরেটর।

চিড়িয়াখানার ডেপুটি কিউরেটর ও চিকিৎসক শাহাদাত হোসেন শুভ জানান, গত ২০ সেপ্টেম্বর চিতা বিড়াল তিনটি শাবক প্রসব করে। মায়ের কাছে থাকায় সেগুলোর লিঙ্গ শনাক্ত করা এখনও সম্ভব হয়ে উঠেনি।

তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “বাচ্চাগুলো সুস্থ ও স্বাভাবিক আছে।”

এ তিন শাবকসহ চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় মোট ছয়টি চিতা বিড়াল রয়েছে বলে জানান তিনি।

বাংলাদেশে ক্যাপটিভ ব্রিডিং (চিড়িয়াখানা ও সাফারি পার্কে বাচ্চা জন্ম নেওয়া) পদ্ধতিতে চট্টগ্রাম চিড়ায়াখানাতেই প্রথমবারের মত চিতা বিড়াল শাবক প্রসব করেছে বলে দাবি এই ডেপুটি কিউরেটরের।

তিনি বলেন, “স্বাভাবিকভাবে চিতা বিড়ালের ক্যাপটিভ ব্রিডিং পদ্ধতিতে বাচ্চা প্রসবের ঘটনা খুবই বিরল।

“গতবছরের ফেব্রুয়ারিতে হাঙ্গেরির ডেভরিসেন জু এ একটি শাবক জন্ম নিয়েছিল। আর ভারতের পাটনা জু’তেও এ পদ্ধতিতে শাবক জন্ম নেওয়ার রেকর্ড আছে।”

শুভ বলেন, “আমাদের কাছে থাকা তথ্য মতে বাংলাদেশে চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানাতেই প্রথম ক্যাপটিভ ব্রিডিং পদ্ধতিতে চিতা বিড়াল শাবক প্রসব করেছে।”

এ চিড়িয়াখানায় থাকা চিতা বিড়ালগুলো চট্টগ্রামে বিভিন্ন এলাকায় অসুস্থ অবস্থায় মানুষের হাতে ধরা পড়েছিল। পরে সেগুলোকে চিকিৎসার জন্য এখানে নিয়ে এসেছিল স্থানীয়রা। পরে সুস্থ করে খাঁচায় রাখা হয়েছিল।

মেয়ে হয়েছে বাঘিনী শুভ্রার  

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানার ‘বাইডেন’ এবার আসছে সবার সামনে

ভিন্নতায় অনন্য রাজ-পরীর ছানা  

রাজ-পরীর ঘরে আবার এসেছে নতুন অতিথি  

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় আবারও কৃত্রিম উপায়ে ফুটল অজগর ছানা

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় পাঁচ বাঘশাবকের জন্ম, টিকে আছে তিনটি