পুলিশ হেফাজত থেকে ‘নিরুদ্দেশ’ মাদকের আসামি রোহিঙ্গা

চট্টগ্রামে পরীর পাহাড়ে অবস্থিত আদালত ভবন
চট্টগ্রাম আদালত ভবনে পুলিশ হেফাজত থেকে নিরুদ্দেশ হয়েছেন মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় গ্রেপ্তার এক রোহিঙ্গা।

কক্সবাজারের শরণার্থী শিবিরে আশ্রয় নেওয়া মায়ানমারের বাস্তুচ্যুত নাগরিক আবুল কালামকে কদমতলী এলাকা থেকে রোববার সকালে গ্রেপ্তার করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর।

অধিদপ্তরের বিভাগীয় গোয়েন্দা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক হুমায়ন কবির খোন্দকার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, গ্রেপ্তারের সময় তার কাছে এক হাজার ৫০টি  ইয়াবা পাওয়া যায়। পরে মামলা দিয়ে তাকে কোতোয়ালি থানায় হস্তান্তর করা হয়।

বিকাল ৩টার দিকে নতুন আদালত ভবনের হাজতখানায় নিয়ে যাওয়ার পথে কোতয়ালি থানা পুলিশের হেফাজত থেকে ওই আসামি পালিয়ে যান।

চট্টগ্রাম নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (প্রসিকিউশন) কামরুল ইসলাম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, আদালতের জিআরও শাখা থেকে অন্যান্য আসামিদের সঙ্গে হাজতখানায় নেওয়ার পথে কালাম পালিয়ে যায়।

নাম প্রকাশ না করে আদালত ‍পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, মাত্র দুজন কনস্টেবল দিয়ে সাত আসামিকে আদালতে হাজির করা হচ্ছিল।

কোতয়ালি থানা পুলিশের ওসি নেজাম উদ্দিন বলেন, “তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে। কীভাবে সে পালাল তাও আমরা খতিয়ে দেখছি।”