সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টদের ধর্মঘটে চট্টগ্রাম বন্দরে শুল্কায়ন ব্যাহত

লাইসেন্স নবায়ন বন্ধের প্রতিবাদে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টরা কাজ বন্ধ রাখায় চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসে বুধবার দিনভর শুল্কায়ন প্রক্রিয়া বিঘ্নিত হয়েছে।

বিভিন্ন সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টের লাইসেন্স নবায়ন না করার প্রতিবাদে বুধবার সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত কাজ বন্ধ রাখে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশন।

ওই সময়ে কাস্টমস হাউসে আমদানি পণ্যের শুল্কায়ন আদায় বন্ধ থাকে।

বিকালে চট্টগ্রাম কাস্টমসের ঊর্ধতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকের পর বিকাল ৪টার দিকে কাজে ফেরে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টরা।

চিটাগাং ক্লিয়ারিং অ্যান্ড ফরওয়ার্ডিং এজেন্ট (সিঅ্যান্ডএফ) অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কাজী মাহমুদ ইমাম বিলু বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, বিভিন্ন সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টের লাইসেন্স কাস্টমস কর্তৃপক্ষ নবায়ন করেনি বিভিন্ন অজুহাতে। মঙ্গলবার নবায়নের শেষ দিনে দুইশ’র মতো প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স নবায়ন হয়নি।

তিনি বলেন, “এসব প্রতিষ্ঠানে অনেক শ্রমিক-কর্মচারী কাজ করেন। কাস্টমস কর্তৃপক্ষ যৌক্তিক কারণ ছাড়াই লাইসেন্স নবায়ন করছে না। এতে রাজস্ব আহরণসহ বিভিন্ন প্রক্রিয়া ব্যাহত হচ্ছে। এর প্রতিবাদে আমরা সকাল থেকে ধর্মঘট করেছি। এতে শুলকআয়ন প্রক্রিয়া বন্ধ ছিল।”

তার হিসাবে, অ্যাসোসিয়েশনের অধীন প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা আড়াইহাজারের মতো। এর মধ্যে দুইশ’র মতো এজেন্টের লাইসেন্স নবায়ন করা হয়নি।

এ বিষয়ে চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউজের কমিশনার মো. ফখরুল আলম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “কিছু প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স নবায়ন ডিলে হচ্ছিল। নবায়নের জন্য বিভিন্ন কাগজপত্র লাগে। এগুলো তিারা ঠিকমতো দিচ্ছিল না। সেকারণে কাজ বন্ধ রেখেছিল।”

সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট নেতাদের সঙ্গে আলোচনার পর বিকাল ৪টার দিকে কাজ শুরু করেছে বলে জানান তিনি।