রেল খাতে বিনিয়োগের আগ্রহ তুরস্কের

বাংলাদেশের রেল খাতে বিনিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করেছে তুরস্ক।

রোববার রেলভবনে রেলপথমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে ঢাকায় তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মুস্তাফা ওসমান তুরান তার দেশের এ আগ্রহের কথা জানান।

রেলপথ মন্ত্রণালয় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

সাক্ষাৎকালে রেলপথমন্ত্রী বলেন, “রেল খাতে আমরা বিদেশি বিনিয়োগ খুঁজছি। বর্তমানে রেলওয়েতে অনেক প্রকল্প চলমান আছে এবং আগামীতে আরও অনেক প্রকল্প নেওয়া হবে। রেল খাতের উন্নয়নে আমাদের একটি মহাপরিকল্পনা আছে, সেটি ধরে ধরে বিভিন্ন প্রকল্প হাতে নিচ্ছি।“

বর্তমানে চলমান কয়েকটি প্রকল্পের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত নতুন লাইন নির্মাণ, পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের আওতায় ঢাকা থেকে যশোর পর্যন্ত ১৭২ কিলোমিটার নতুন রেললাইন নির্মাণ, যমুনা নদীর ওপর আলাদা রেলসেতু নির্মাণ কাজ চলছে।

“ভাঙ্গা থেকে পায়রা বন্দর পর্যন্ত নতুন রেলপথ নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে এবং নতুন লোকোমোটিভ ও প্যাসেঞ্জার কোচ বিভিন্ন দেশ থেকে সংগ্রহ করছি। কারখানাগুলোকে আধুনিকায়ন করা হয়েছে এবং পর্যায়ক্রমে ইলেকট্রিক ট্রাকশন এর দিকে যাব।” 

তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মুস্তাফা ওসমান তুরান বলেন, যে কোনো দেশের পরিবেশবান্ধব, সহজ ও সাশ্রয়ী যোগাযোগ ব্যবস্থা হচ্ছে রেলওয়ে। বাংলাদেশ ও তুরস্কের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ পারস্পরিক সম্পর্ক রয়েছে। 

ভবিষ্যতে রেল খাতে বিনিয়োগের সুযোগ তৈরি হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তুরস্কের রাষ্ট্রদূত।

এসময় রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ সেলিম রেজা, বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক ধীরেন্দ্র নাথ মজুমদার, তুরস্ক দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর কেনান কালাইসি উপস্থিত ছিলেন।