‘সাহস’ চলচ্চিত্র ‘প্রদর্শনযোগ্য নয়’, সেন্সর বোর্ডের সিদ্ধান্ত

তরুণ নির্মাতা সাজ্জাদ খানের চলচ্চিত্র ‘সাহস’ দেশের প্রেক্ষাগৃহে ‘প্রদর্শনযোগ্য নয়’ বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড; দুয়েকদিনের মধ্যে ছবির প্রযোজক-পরিচালককে চিঠি দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বিষয়টি জানানো হবে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সেন্সর বোর্ডের সচিব মমিনুল হক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “সেন্সর বোর্ডের সভায় সর্বসম্মতিক্রমে ছবিটি অপ্রদর্শনযোগ্য বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।”

ছবিটি প্রদর্শনযোগ্য নয় কেন?-এমন প্রশ্নের জবাবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সেন্সর বোর্ডের এক সদস্য বলেন, “ছবিতে অশ্লীল সংলাপ, গালাগালি ও ভায়োলেন্স রয়েছে। সেই সঙ্গে যুবকদের অপরাধপ্রবণতায় উৎসাহিত করে-এমন কিছু দৃশ্য রয়েছে। ফলে ছবিটি সিনেমা হলে প্রদর্শনযোগ্য নয় বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।”

বিষয়টি নিয়ে পরিচালক সাজ্জাদ খান বলেন, “আমরা অফিসিয়ালি চিঠি পাওয়ার পর এ বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেব।”

ছবিটি প্রযোজনা করেছে শাপলা মিডিয়া। এতে অভিনয় করেছেন অর্ষা, ইমরানসহ আরও অনেকে।

বোর্ড সভায় কোনো চলচ্চিত্রকে ‘অপ্রদর্শনযোগ্য’ হিসেবে সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর এ সংক্রান্ত ফাইলটি তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ে সচিবের দপ্তরে যায়। তার অনুমোদন পাওয়ার পর চিঠি ইস্যু করে ছবির প্রযোজক-পরিচালককে আনুষ্ঠানিকভাবে বিষয়টি জানানো হয়।

‘সাহস’র বিষয়টি কোন পর্যায়ে আছে?-এমন প্রশ্নের জবাবে মমিনুল বলেন, “চিঠিটা তৈরির পর্যায়ে আছে। আশা করছি, দুয়েকদিনের মধ্যেই চিঠিটি পেয়ে যাবেন তারা। আর ইস্যু হলে সেটিকে ‘অপ্রদর্শনযোগ্য’ বলে ঘোষণা দেওয়া হবে।”

বিধি অনুসারে চিঠি প্রাপ্তির ৩০ দিনের মধ্যে এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করার সুযোগ রয়েছে ছবির প্রযোজক-পরিচালকের।

এর আগে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে চলচ্চিত্রশিল্পকে ‘নেতিবাচকভাবে উপস্থাপনের’ অভিযোগে পরিচালক অনন্য মামুনের ‘মেকআপ’ চলচ্চিত্রকে ‘অপ্রদর্শনযোগ্য’ হিসেবে ঘোষণা দিয়েছিল সেন্সর বোর্ড।