আসাদুজ্জামান নূর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত

সাবেক সংস্কৃতিমন্ত্রী, সংসদ সদস্য ও অভিনেতা আসাদুজ্জামান নূর আবারও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

রোববার তার করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে বলে বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আহকাম উল্লাহ জানান।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, জাতীয় সংসদ অধিবেশনে যোগ দেওয়ার জন্য নিয়ম অনুযায়ী কোভিড পরীক্ষার নমুনা দিয়েছিলেন নূর।

“করোনাভাইরাস পজিটিভ রিপোর্ট পেয়ে তিনি বাসায় ফিরে এসেছেন; চিকিৎসকের পরামর্শে বাসায় চিকিৎসা চলছে তার। আপাতত কোনো শারীরিক জটিলতা নেই।”

গত বছরের ডিসেম্বরে প্রথমবার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সেরে ওঠেন ৭৫ বছর বয়সী নূর।

আসাদুজ্জামান নূর নীলফামারী-২ আসনের সংসদ সদস্য। বর্তমানে তিনি সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য।

চার বারের সংসদ সদস্য নূর ২০১৩ সালের শেখ হাসিনার সরকারে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বও পালন করেছিলেন।

তিনি মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি, বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সভাপতি। মুক্তিযোদ্ধা আসাদুজ্জামান নূর ২০১৮ সালে স্বাধীনতা পদকে ভূষিত হন।

১৯৭২ সাল থেকে নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়ের সঙ্গে যুক্ত থেকে বাংলাদেশের নাট্য আন্দোলনে সক্রিয় আসাদুজ্জামান নূর। এ পর্যন্ত দলের ১৫টি নাটকে ৬ শতাধিক বারের বেশি অভিনয় করেছেন তিনি; নির্দেশনা দিয়েছেন ‘দেওয়ান গাজীর কিসসা’ নাটকটির।

তার অভিনীত টিভিনাটক ‘কোথাও কেউ নেই’ এর ‘বাকের ভাই’, ‘এই সব দিনরাত্রি’র ‘শফিক’, ‘অয়োময়’ নাটকের ‘ছোট মীর্জা’, ‘সবুজ ছায়া’-র ‘ডাক্তার’ চরিত্রগুলো দারুন দর্শকপ্রিয় হয়।

আসাদুজ্জামান নূর ‘আগুনের পরশমনি’, ‘শঙ্খনীল কারাগার’, ‘চন্দ্রকথা’, ‘দহন’ চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেন।