কমিউনিটি ক্লিনিকে দেওয়া হবে আরও দেড় কোটি ডোজ কোভিড টিকা

ফাইল ছবি
সারাদেশে কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে আরও দেড় কোটি ডোজ করোনাভাইরাসের টিকা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক।

সোমবার রাজধানীর একটি হোটেলে বাংলাদেশ সোসাইটি অব মেডিসিন আয়োজিত সেমিনারে তিনি এ কথা জানান।

এর আগে গত  ৬ থেকে ১২ নভেম্বর দেশের ১৩ হাজার কমিউনিটি ক্লিনিকে বিশেষ ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে কোভিড টিকা দেওয়া হয়। আগামী মাসের একই সময়ে দেওয়া হবে এ টিকার দ্বিতীয় ডোজ।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, “আমরা কমিউনিটি ক্লিনিকে ভ্যাকসিনের কার্যক্রম চালিয়েছি। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে আবারও আমরা দুই-তিনটি কার্যক্রম করব। যার মাধ্যমে দেড় কোটি মানুষকে টিকা দেওয়ার টার্গেট রয়েছে।”

তিনি জানান, এ পর্যন্ত প্রায় নয় কোটি ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। টিকা পাওয়ার যোগ্য জনসংখ্যার প্রায় ৪০ শতাংশ প্রথম ডোজ এবং ২৫ শতাংশ মানুষ দুই ডোজ টিকা পেয়েছেন।

এখনও অনেকে টিকার বাইরে থেকে গেলেও সেই সংখ্যা কমে আসছে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, “টিকা নেওয়ার লোকও কমে আসছে। আমরা দেখি টিকা কেন্দ্রে আগের মত ভিড় নেই।

“আমরা আহ্বান করব যারা টিকা নেন নাই, তারা এগিয়ে আসুন। খুব সহজেই আমরা ভ্যাকসিন দিয়ে দিই, শুধু ন্যাশনাল আইডি কার্ড বা জন্মনিবন্ধন হলেই হয়। টিকা নেবেন, ভালো থাকবেন।”

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে, রোববার পর্যন্ত সারাদেশে ৫ কোটি ৪৭ লাখ ৮৩ হাজারের বেশি মানুষ করোনাভাইরাসের টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন। টিকার দুটি ডোজ পেয়েছেন ৩ কোটি ৪৮ হাজার ৬৩ হাজারের বেশি মানুষ।

বাংলাদেশ সোসাইটি অব মেডিসিনের মহাসচিব অধ্যাপক ডা.আহমেদুল কবীরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব মো. লোকমান হোসেন মিঞা, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম, প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এবিএম আবদুল্লাহ,ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মো. টিটু মিঞা, স্বাচিপের সভাপতি অধ্যাপক ডা. ইকবাল আর্সলান, বিএসএমএমইউর উপাচার্য অধ্যাপক ডা. শারফুদ্দিন আহমেদ,বাংলাদেশ সোসাইটি অব মেডিসিনের সভাপতি অধ্যাপক ডা. মো. বিলাল আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন

শনিবার থেকে সাত দিন কমিউনিটি ক্লিনিকে কোভিড টিকা