তারুণ্যময় ত্বকের খাবার

ছবি: রয়টার্স।
খাদ্যাভ্যাস ত্বকের ওপর প্রভাব ফেলে তাই। এমন খাবার খাওয়া প্রয়োজন যা ত্বককে সতেজ, উজ্জ্বল ও প্রাণবন্ত রাখতে সহায়তা করে।

পুষ্টি-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনে প্রাকৃতিক প্রসাধনী তৈরির প্রতিষ্ঠান ‘পোশন লন্ডন’য়ের পুষ্টিবিষয়ক প্রশিক্ষক জেসিকা শ্যান্ড বলেন, “নিয়মিত ত্বক বান্ধব খাবার খাওয়া সুষম খাবারের অন্তর্গত। এটা হজমক্রিয়া সচল রাখে এবং ত্বকের উজ্জ্বলতা ও তারুণ্য ধরে রাখতে সহায়তা করে।”

আখরোট: অধিকাংশ বাদামই ত্বকের জন্য উপকারী। কারণ এতে আছে উচ্চ মাত্রার স্বাস্থ্যকর চর্বি। আখরোটে থাকা উচ্চ মাত্রার ভেষজ ওমেগা-থ্রি ত্বক দৃঢ় করতে সহায়তা করে।

দধি: প্রোটিন সমৃদ্ধ গাঁজানো দুধে উচ্চ মাত্রায় ব্যাক্টেরিয়া, ইস্ট ও ত্বক বান্ধব অ্যামিনো অ্যাসিড থাকে। এটা ত্বকের ভারসাম্য বজায় রাখে এবং ত্বকের ‘খারাপ ব্যাক্টেরিয়া’র বৃদ্ধি প্রতিহত করে। প্রোবায়োটিক্স ও প্রিবায়োটিক্স ত্বকের জন্য উপকারী।

টমেটো: অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট লাইকোপেন সমৃদ্ধ। রান্না পরে এটা ত্বককে উন্মুক্ত রেডিকেল, রোদ, প্রদাহ, চাপ ও দূষণ থেকে রক্ষা করতে সহায়তা করে। 

ব্রকলি: উচ্চমাত্রার ভিটামিন কে সমৃদ্ধ যা রক্ত সঞ্চালন বাড়ায়। কৌশিক নালীকে দৃঢ় করে এবং চোখের চারপাশের কালো দাগ দূর করে। এতে আছে ভিটামিন সি, এ ফোলাট এবং আঁশ যা ত্বককে ভেতর থেকে সুন্দর করতে সহায়তা করে।

বেগুন: অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও ফাইটোকেমিকেল অ্যান্থোসায়ানিন (ব্লুবেরি, পাম, ক্র্যানবেরি ও ব্ল্যাক কারেন্ট ফলেও পাওয়া যায়) সমৃদ্ধ যা বয়সের ছাপ কমায় এবং এর উচ্চ আঁশ ও ভিটামিন বি ত্বককে উজ্জ্বল করতে সহায়তা করে।

আরও পড়ুন

হৃদযন্ত্র সুস্থ রাখার তিন খাবার  

থাইরয়েড সুস্থ রাখার খাবার  

নখ শক্ত করে যেসব খাবার  

বৃক্ক ভালো রাখার খাবার