ত্বক ও চুলে নিমের ব্যবহার

শুধু পাতা নয়, নিমের গাছের ডাল কিংবা বাকল- সবই উপকারী।

নিম প্রাকৃতিক ঔষধি গুণ সমৃদ্ধ যা ত্বক ও চুল ভালো রাখতে সহায়তা করে।

রূপচর্চা-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে ত্বক ও চুলে নিম ব্যবহারের উপকারিতা সম্পর্কে জানানো হল।

দাগ কমাতে: নিম ত্বকের তেলের নিঃসরণ নিয়ন্ত্রণ করে, ক্ষত সারায়, কোলাজেন বৃদ্ধি করে এবং ব্রণের কারণে হওয়া দাগ কমাতেও সহায়তা করে। এটা ত্বকের কোষের আরোগ্যলাভ করতে প্রাকৃতিক উপাদান হিসেবে কাজ করে।

নিম প্রাকৃতিকভাবে ত্বকের হাইপার পিগমেন্টেইশন ও দাগ কমাতে সহায়তা করে।

ভালো ফলাফল পেতে নিমপানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিতে পারেন।

ব্রণ সারাতে: নিম কেবল দাগই কমায় না বরং এটা ব্রণ কমাতেও সহায়তা করে।

নিমে আছে অ্যান্টিসেপটিক ও ব্যাক্টেরিয়া-রোধী উপাদান যা ব্রণ কমাতে সহায়তা করে।

তাই ব্রণের সমস্যা থাকলে ত্বকে নিম সমৃদ্ধ ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন।

অতিরিক্ত সিবাম নিয়ন্ত্রণ করতে: নিম শুষ্ক ত্বকেও খুব ভালো কাজ করে।

নিমে অ্যাস্ট্রিনজেন্ট থাকায় তা তৈলাক্ত ত্বকে খুব ভালো কাজ করে।

একই কারণের জন্য ত্বকে নিমের পানি ব্যবহার করতে পারেন।

চুলের বৃদ্ধি: নিমে আছে প্রদাহ ও ফাঙ্গাসবিরোধী উপাদান এবং এটা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ যা রক্ত সঞ্চালন বাড়িয়ে চুলের বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

যারা চুল পড়ার সমস্যায় ভুগছেন তারা নির্দ্বিধায় নিমের তেলের ওপর ভরসা করতে পারেন।

খুশকি দূর করতে: খুশকির সমস্যা দেখা দিলে নিমপাতা সমাধান হিসেবে বেছে নিতে পারেন।

এটা ম্যালাসিজিয়া ফাঙ্গাস দূর করে। যা মূলত মাথার ত্বকে খুশকি সৃষ্টি করে।

নিম পানি দিয়ে চুল ধুয়ে নিন, এতে খুশকি দূর হবে।

 

আরও পড়ুন

নিমের স্বাস্থ্যগুণ  

ত্বকের যত্নে নিমের তেল  

চুলের নানান সমস্যার সমাধান