গোসলের সময় মুখ ধোয়ার ক্ষেত্রে যা করণীয়

ছবি: রয়টার্স।
গোসলের সময় মুখ ধোয়ার ক্ষেত্রে দুটি বিষয় মাথায় রাখা উচিত।

মুখ ধোয়ার আবার নিয়ম কী? ধুলেই হল! না, বিষয়টা তা নয়।

নিউ ইয়র্কের বোর্ড স্বীকৃত ত্বক বিশেষজ্ঞ মেরিসা গার্শিক বলেন, “গোসলের সময় মুখ ধোয়াতে কোনো সমস্যা নেই। দিন শেষে সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল মুখ পরিষ্কার করা। কোথায় তা করবেন তা সম্পূর্ণ একজন মানুষের ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত। সেটা যদি গোসলের সময় হয়, তবে তাই সই।”

ওয়েলঅ্যান্ডগুড ডটকম’য়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনে তিনি আরও বলেন, “তবে হ্যাঁ, কিছু বিশেষ পদ্ধতি অবলম্বন করলে তা ত্বকের জন্য উপকারী হবে। আমি বলব দুটি নিয়ম যা সবার মেনে চলা উচিত গোসলের সময় মুখ ধোয়ার ক্ষেত্রে।”

প্রথমত, পানি হতে হবে কুসুম গরম

গরম পানি দিয়ে গোসল করা ত্বকের জন্য সবসময়ই ক্ষতিকর। তাই বেছে নিতে হবে কুসুম গরম পানি।

গরম পানি ত্বকের জৈবিক তেল ধুয়ে ফেলে। এখন পুরো শরীর ধোয়ার জন্য যদি গরম পানিই ব্যবহার করা হয়, অন্তত মুখ ধোয়ার ক্ষেত্রে পানির তাপমাত্রাটা যাতে কম হয়, অর্থাৎ কুসুম গরম হয়, সেটা নিশ্চিত করতে হবে।

শুধু গোসল নয়, মেইকআপ তুলতে, মুখের ধুলাবালি, ঘাম পরিষ্কার করতে কখনই গরম পানি ব্যবহার করা উচিত নয়, কুসুম গরম পানি ব্যবহার করতে হবে।

মুখ ধুতে হবে সবার শেষে

গোসলের শুরুতেই মুখ ধোয়ার প্রবল ইচ্ছা থাকতে পারে। তবে মুখ ধোয়ার কাজটা সবার শেষের জন্য তুলে রাখা উচিত।

কারণ গোসলের সময় ব্যবহার করা শ্যাম্পু, কন্ডিশনার, বডি ওয়াশ ইত্যাদি বিভিন্ন প্রসাধনী ব্যবহার করা হয়, যা মুখের ত্বকও স্পর্শ করে। শেষে মুখ ধোয়া হলে এই প্রসাধনীর অবশিষ্টাংশগুলোও মুখ থেকে ধুয়ে যাবে, যা গোসলে শুরুতে মুখ পরিষ্কার করলে সম্ভব নয়।

আর এই অবশিষ্টাংশ মুখের ত্বকে থেকে গেলে, তা থেকে সৃষ্টি হতে পারে অস্বস্তি, প্রদাহ, ব্রণ ইত্যাদি নানান সমস্যা।

 

আরও পড়ুন

গোসলের ভুলগুলো  

দেহ পরিষ্কারে করছেন তো ঠিক মতো?  

মাথার চিটচিটে ভাব দূর করতে