ভারতে কোভিড চিকিৎসা কেন্দ্রে অগ্নিকাণ্ডে ৭ জনের মৃত্যু

আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার পর জীবিতদের খোঁজ করছেন উদ্ধারকারীরা। ছবি: রয়টাস
ভারতের অন্ধ্র প্রদেশে কোভিড-১৯ হাসপাতাল হিসেবে ব্যবহৃত একটি হোটেলে আগুন লেগে অন্তত সাত জনের মৃত্যু হয়েছে।

রোববার ভোরে অন্ধ্রের বিজয়াবাডা শহরে অগ্নিকাণ্ডের এ ঘটনাটি ঘটে বলে বার্তা সংস্থা এএনআইয়ের বরাতে জানিয়েছে হিন্দুস্তান টাইমস।

“ভোর ৫টার দিকে ঘটনাটি ঘটে। হাসপাতালটিতে প্রায় ২২ জন রোগীকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল। আমরা   পুরো ভবনটি থেকে সবাইকে সরিয়ে নিচ্ছি,” কৃষ্ণা জেলা কালেক্টর মোহাম্মদ ইমতিয়াজ এমনটি বলেছেন বলে উদ্ধৃতি দিয়ে জানিয়েছে এএনআই। 

“প্রাথমিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে মনে হচ্ছে, তবে আমাদের নিশ্চিত হতে হবে,” বলেছেন তিনি।

 

শেষ খবর পর্যন্ত হোটেলটি থেকে ২০ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। আরও কয়েকজন ভবনটির ভিতরে আটকা পড়ে থাকতে পারেন বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন তারা।

কোভিড-১৯ রোগীদের রাখার জন্য রমেশ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ হোটেল স্বর্ণা প্যালেসকে ভাড়া নিয়েছিল।

“এ ঘটনায় ১৫ থেকে ২০ জন আহত হয়েছেন। তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে দুই থেকে তিন জনের অবস্থা সঙ্কটজনক,” এনডিটিভিকে বলেছেন ঊর্ধ্বতন একজন পুলিশ কর্মকর্তা।

এক টুইটে এ ঘটনায় গভীর দুঃখ ও শোক প্রকাশ করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। 

অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জগন মোহন রেড্ডিও শোক প্রকাশ করে ঘটনা তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার গুজরাটের আহমেদাবাদে কোভিড-১৯ রোগীদের জন্য নির্ধারিত একটি বেসরকারি হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) আগুন লেগে আট জনের মৃত্যু হয়েছিল। ওই আগুনেরও সূত্রপাত বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে হয়েছিল বলে জানিয়েছিল পুলিশ।