রামপুরা থানার মামলা: সেলিমা, আমানসহ ৪০ বিএনপি নেতাকর্মীর বিচার শুরু

ছবি: সিএমএম আদালত
রামপুরা থানায় দায়ের করা বিশেষ ক্ষমতা আইন ও বিস্ফোরক দ্রব্য আইনের পৃথক দুই মামলায় বিএনপির ৪০ নেতাকর্মীর বিচার শুরুর নির্দেশ দিয়েছেন ঢাকার মহানগর ৬ নম্বর বিশেষ ট্রাইবুনাল।

সোমবার অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে এ দুই মামলার আনুষ্ঠানিক বিচার কার্যক্রম শুরু হল।

এদিন ঢাকার ৬ নম্বর বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক ফাতেমা ফেরদৌস আসামিদের অব্যাহতির আবেদন নাকচ করে অভিযোগ গঠনের আদেশ দেন।

আগামী ২৯ অক্টোবর সাক্ষ্য গ্রহণের তারিখ রাখেন বিচারক বলে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছেন বিএনপির নেতাকর্মীদের আইনজীবী জয়নুল আবেদীন মেসবাহ।

এ দুই মামলার আসামি বিএনপি নেতাদের মধ্যে রয়েছেন— সেলিমা রহমান, আমান উল্লাহ আমান, শামছুর রহমান, শিমুল বিশ্বাস, হাবিব-উন-নবী-খান সোহেল, বরকত উল্লাহ বুলু, মীর সরাফত আলী সফু, আজিজুল বারী হেলাল, শওকত মাহমুদ।

অপর এক আসামি শফিকুল বারী বাবুর মৃত্যু হয়েছে।

মামলাটি তদন্ত করে খিলগাঁও জোনাল টিমের এসআই আশরাফুল আলম ৪১ জনকে অভিযুক্ত করে বিশেষ ক্ষমতা আইন ও বিস্ফোরক আইনে পৃথক দুটি অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

অভিযোগপত্র থেকে জানা যায়, ২০১৫ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি বিএনপির ডাকা হরতালের সমর্থনে অজ্ঞাত ৪০-৪৫ জন বিএনপি-জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা রামপুরা থানাধীন ডিআইটি রোডে ন্যাশনাল ব্যাংকের সামনে অবস্থান নেন।

তারা আব্দুল্লাহপুর থেকে ছেড়ে আসা প্রচেষ্টা পরিবহনের একটি বাসে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করেন। এতে যাত্রীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন এবং এক যাত্রী গুরুতর আহত হন।

পরে, তারা পুলিশের ওপর ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে কাজে বাধা সৃষ্টি করেন।

এ ঘটনায় রামপুরা থানার এসআই বাবুল শরীফ বাদী হয়ে ওই দিনই মামলাটি দায়ের করেন।