সাম্প্রদায়িক উসকানি ঠেকাতে প্রধানমন্ত্রীর কঠোর নির্দেশ: কাদের

‘সাম্প্রদায়িক উসকানি দিয়ে’ যারা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে, তাদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিব্হন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর গোপীবাগে রামকৃষ্ণমিশন পূজা মণ্ডপ পরিদর্শনের সময় তিনি এ কথা জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, “সারাদেশে প্রতিটি পূজামণ্ডপে শান্তিপূর্ণভাবে পূজা হচ্ছে বলে যাদের গাত্রদাহ, তারা দেশকে পিছিয়ে দিতে চায়। তাদের অপকৌশলের একটি হচ্ছে হিন্দু-মুসলমানের বৈরিতা সৃষ্টি করা।

“শেখ হাসিনার সরকার এই অপশক্তিকে মাথা চাড়া দিয়ে উঠতে দেবে না। যে কোনো সাম্প্রদায়িক উসকানির বিরুদ্ধে আমাদের সচেতন হতে হবে। প্রধানমন্ত্রী ইতোমধ‌্যে প্রশাসনকে সব ধরনের সাম্প্রদায়িক উসকানিমূলক কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে ব‌্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

দলের নেতাকর্মীরা সতর্ক অবস্থানে থাকবে জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, “জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে উগ্র সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী বেশ কয়েকটি জায়গায় সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করার পাঁয়তারা করছে।”

এদের বিরুদ্ধে কঠিন ও কঠোর অবস্থানে থাকার জন‌্য এবং ঐক‌্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ করার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানান ওবায়দুল কাদের।

বাঙালি হিন্দুদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গা পূজা চলার মধ্যেই বুধবার সকালে কুমিল্লায় কুরআন অবমাননার কথিত অভিযোগ নিয়ে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে স্থানীয় প্রশাসন ও পুলিশ পরিস্থিতি শান্ত করতে গেলে তারা তোপের মুখে পড়ে, বাঁধে সংঘর্ষ।

এর জের ধরে চাঁদপুরেও পূজা মণ্ডপে ভাংচুর ও সংঘর্ষ হয়, সেখানে প্রাণহানিও ঘটে। মণ্ডপে হামলা-ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে চট্টগ্রামের বাঁশখালী ও কর্ণফুলী উপজেলা, কক্সবাজারের পেকুয়া, মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ ও কুলাউড়া এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জেও।

কুমিল্লার ঘটনা খতিয়ে দেখার জন্য বুধবারই স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, “ধর্মীয় সম্প্রীতি বিনষ্ট করার উদ্দেশ্যে যে কেউ এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকুক, তাদেরকে অবশ্যই আইনের আওতায় এনে উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।”

এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, “ঘটনার পুনরাবৃত্তি যাতে না ঘটতে পারে সেজন‌্য সকলকে আরও বেশি সতর্ক থাকতে হবে। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এসময় সবসময় সতর্ক থেকেছে।

“এবার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের কারণে হয়তো কিছুটা সতর্কতার ঘাটতি থাকতেও পারে। তবে আমরা কঠোরভাবে সতর্ক রয়েছি যাতে এই অপশক্তি মাথা চাড়া দিয়ে উঠতে না পারে।”

এ সময় গুজবে কান না দিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী।