এমপিরা ‘ব্যাক্কলের’ মতো ঘোরে: চুন্নু

সংসদ সদস্যদের ‘রাষ্ট্রীয় প্রটোকল’ ঠিক করে দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু।

সংসদে জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু।

তিনি বলেছেন, “উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারাও অস্ত্রধারী আনসার সঙ্গে নিয়ে চলাফেরা করেন। আর এমপি ব্যাক্কলের মতো ঘোরে। এমপির পার্সনাল একটা গানও নাই।”

রোববার জাতীয় সংসদে একটি বিল পাসের আলোচনায় অংশ নিয়ে মুজিবুল হক একথা বলেন।

কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জের এমপি চুন্নু বলেন, “এমপিদের স্টাটাসটা কী, রাষ্ট্রীয় প্রটোকল কী, এটা জানতে চেয়ে বলতে বলতে মইনউদ্দীন খান বাদল মরেই গেছেন।

“উচ্চ আদালত নিজেদের মত করে ওয়ারেন্ট অব প্রিসিডেন্স ঠিক করেছে। সেটা করতে পারে। করুন আপত্তি নাই। কিন্তু একজন পার্লামেন্টের মেম্বার, জনপ্রতিনিধি, রাষ্ট্রের মালিক তাদের প্রতিনিধি কোনো সরকারি আমলার নিচে থাকবে, এটা অসুন্দর লাগে।”

সংসদ নেতা শেখ হাসিনার উদ্দেশে তিনি বলেন, “সময় চেঞ্জ হয়েছে। মাননীয় সংসদ নেত্রী আপনার সাথে তো অনেকে আছে, এমপিরা তো একলা একলা ঘুরে। ডিসির একজন বডি গার্ড আছে, সচিবের বডি গার্ড আছে, আর এমপি ঢাকা শহরে একা একা ঘুরে।”

এমপিদের অবসর ভাতার দাবি

সংসদে বিরোধীদলীয় উপনেতা জি এম কাদের সংসদ সদস্যদের জন্য অবসরকালীন আর্থিক সুবিধার দাবি জানান সংসদে।

তিনি বলেন, “আমাদের অনেক সংসদ  সদস্য আছে, ১৫-২০-২৫ বছর আছেন। তারা সৎভাবে কাজ করেন। প্রশাসনের বা অনেক জায়গায় অবসরের পর আর্থিক সহায়তা দেওয়া হয়। অনেক দেশে এমপিদের অবসর সহায়তা দেওয়া হয়। আমাদের দেশে এ ধরনের ব্যবস্থা করার দাবি করছি। তাহলে যারা সৎ ভাবে কাজ করতে চান, তারা মানবেতর জীবনে পড়বে না।”

তিনি আরও বলেন, “ভিআইপি লাউঞ্জ অবসরের পর কর্মকর্তারাও ব্যবহার করেন। এমপিরা পারেন না। সচিবদের দেওয়া হচ্ছে। অন্যদের দেওয়া হচ্ছে। আর্মিদের দেওয়া হচ্ছে। এমপিরা পান না। স্থানীয় সরকারে যারা আছেন,তাদেরকেও আর্থিক সহায়তা দেওয়ার দাবি জানাচ্ছি।”