ফুটবলে জিদান যা করেছে, মারাদোনা তা পারত কমলা দিয়ে: প্লাতিনি

ফ্রান্সের প্রথম বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক জিনেদিন জিদানকে অনেকেই রাখেন সবসময়ের সেরা মিডফিল্ডারদের ছোট্ট তালিকায়। গতি, ড্রিবলিং, নিখুঁত পাস সব মিলিয়ে ছিলেন দুর্দান্ত একজন প্লেমেকার। তার তুলনায় দিয়েগো মারাদোনাকে অনেক এগিয়ে রাখছেন মিশেল প্লাতিনি। তার চোখে ফুটবলে জিদান যা করতে পারেন, আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি তা পারেন কমলা দিয়ে।

কার্ডিয়াক অ্যারেস্টে গত বুধবার মারা যান ফুটবল ইতিহাসের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় হিসেবে বিবেচিত মারাদোনা। আর্জেন্টাইন কিংবদন্তির স্মরণে পরের দিন বিশেষ সংখ্যা বের করে ফ্রান্সের বিখ্যাত ক্রীড়াদৈনিক ‘এল ইকুইপ।’ সেখানে এক সাক্ষাৎকারে ১৯৮৬ বিশ্বকাপের মহানায়ককে নিয়ে নিজের শ্রদ্ধার কথা জানান ফ্রান্সের সাবেক অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার ও কোচ প্লাতিনি।

“কয়েক বছর আগে বলেছিলাম, জিদান বল দিয়ে যা করেছে, মারাদোনা তা করতে পারত একটা কমলা দিয়ে। সে ফুটবল খেলেছে তবে একজন স্ট্রিট জাগলার হতে পারত।”

ফ্রান্সের ফুটবল ইতিহাসের সেরা খেলোয়াড়দের একজন হিসেবে বিবেচিত ৬৫ বছর বযসী প্লাতিনির চোখে অবশ্য এরপরও মারাদোনা ইতিহাসের সেরা নন।

“ইতিহাসের সেরা খেলোয়াড়ের আসনে মারানোদাকে বসানো কঠিন। আমি তার বিপক্ষে খেলেছি, তবে আমার কাছে ক্রুইফ ছিল সবার সেরা। পেলেও ছিলেন, যিনি ১৯৭০ বিশ্বকাপ জিতেছিলেন এবং তিনি মানুষ না অন্য কিছু ছিলেন।”

“মারাদোনা-পেলে প্রতিদ্বন্দ্বিতা যদি থেকে থাকে, তা আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলের প্রতিদ্বন্দ্বিতার কারণে, তার কারণ দুই দেশই ইতিহাসের সেরা ফুটবলারকে পেতে চায়।”