‘ইউনাইটেডকে বিদায় জানানোর এটাই সঠিক সময়’

মাইকেল ক্যারিক (ডানে)। ছবি: রয়টার্স
খেলোয়াড় হিসেবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে দীর্ঘ এক যুগের ক্যারিয়ার শেষে মাইকেল ক্যারিক যোগ দেন ক্লাবটির কোচিং স্টাফে। এখানে দারুণ সব অর্জন রয়েছে তার, আছে অসাধারণ সব স্মৃতি। সব কিছু পেছনে ফেলে প্রিমিয়ার লিগের দলটির সঙ্গে ১৫ বছরের সম্পর্কের ইতি টানলেন সাবেক এই ইংলিশ মিডফিল্ডার।

তার বিদায়টাও হলো দুর্দান্ত। লিগ ম্যাচে বৃহস্পতিবার আর্সেনালের বিপক্ষে নাটকীয় লড়াইয়ে ইউনাইটেডের ৩-২ গোলে জয়ের পরই এই ঘোষণা দেন ক্যারিক।

২০০৬ সালে টটেনহ্যাম হটস্পার থেকে ইউনাইটেডে যোগ দেওয়া ক্যারিক দলটির হয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৪৬৪ ম্যাচ খেলেছেন। জিতেছেন পাঁচটি প্রিমিয়ার লিগের শিরোপাসহ চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, ইউরোপা লিগ, এফএ কাপ, ক্লাব বিশ্বকাপ ও দুটি লিগ কাপের ট্রফি।

২০১৮ সালে ফুটবলার হিসেবে অবসর নেওয়ার পরপরই তখনকার ইউনাইটেড কোচ জোসে মরিনিয়োর কোচিং স্টাফে যোগ দেন ক্যারিক। ওই বছরই অবশ্য দলটির প্রধান কোচের দায়িত্ব থেকে বিদায় নেন মরিনিয়ো। এরপর তিনি কাজ করেন উলে গুনার সুলশারের সঙ্গে।

দলের টানা ব্যর্থতার দায়ে গত ২১ নভেম্বর ইউনাইটেডের কোচের পদ থেকে চাকরি হারান সুলশার। নতুন কোচ পাওয়া পর্যন্ত দায়িত্বটি পালন করছিলেন ক্যারিক।

নতুন কোচও পেয়ে গেছে ইউনাইটেড। রালফ রাংনিককে নিয়োগ দিয়েছে তারা। শুক্রবার থেকেই দলটির সঙ্গে কাজ শুরু করবেন এই জার্মান।

আর্সেনালের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে অ্যামাজন প্রাইমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ক্যারিক বলেন, লম্বা এই পথচলার শেষ বলা সহজ ছিল না তার জন্য। তবে সময়মতো সিদ্ধান্ত নিতে পেরে তিনি খুশি।

“এই সিদ্ধান্ত নেওয়া সহজ ছিল না, তবে আমার মনে হয়েছে, এটাই সঠিক। খেলোয়াড়ি জীবন শেষে আমি বিরতি নিতে চেয়েছিলাম, কিন্তু সেটা হয়নি। আমার মনে হয়, (দায়িত্ব থেকে) সরে দাঁড়ানোর এটাই সঠিক সময় এবং শেষ করার দারুণ উপায়।”

“এটা শতভাগ আমার সিদ্ধান্ত।…ক্লাবকে ও আগত কোচকে সম্মান করি। মনে হয়েছে, ক্লাব ও রালফের স্বার্থে আমার সরে যাওয়ার এটাই সঠিক সময় এবং আমি এই সিদ্ধান্ত নিয়ে বেশ খুশি।”

ইউনাইটেডের মূল দলের অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে ছোট্ট এই অধ্যায়ে সফলই ছিলেন ক্যারিক। এই সময়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে ২-০ গোলে জিতে নকআউট পর্বে পা রাখে ইউনাইটেড আর প্রিমিয়ার লিগে চেলসির সঙ্গে ১-১ ড্রয়ের পর এবার আর্সেনালের বিপক্ষে জিতল দলটি।

লিগ টেবিলে ১৪ ম্যাচে ছয় জয় ও ৩ ড্রয়ে ২১ পয়েন্ট নিয়ে এখন সাত নম্বরে আছে ইউনাইটেড।