বর্ষসেরা একাদশে ৪ ফরোয়ার্ড: হলান্ড, লেভানদোভস্কি, মেসি ও রোনালদো

গতবার ফিফা ফিফপ্রো বর্ষসেরা একাদশের আক্রমণভাগে ছিলেন তিন জন। এবার ঠাঁই পেয়েছেন চার জন। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো, পিএসজির লিওনেল মেসি, বায়ার্ন মিউনিখের রবের্ত লেভানদোভস্কি আছেন গতবারের মতো। তাদের সঙ্গে এবার যোগ হয়েছেন বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের তরুণ ফরোয়ার্ড আর্লিং হলান্ড।

সুইজারল্যান্ডের জুরিখে সোমবার রাতে বিশ্ব ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থার ‘দা বেস্ট ফিফা ফুটবল অ্যাওয়ার্ডস’ অনুষ্ঠানে এবারও বসেনি তারকাদের মেলা। অনলাইনের মাধ্যমে হয়েছে সবকিছু।

২০২১ সালের বর্ষসেরা একাদশের পোস্ট সামলানোর দায়িত্ব পেয়েছেন ইতালির ইউরো জয়ের নায়ক জানলুইজি দোন্নারুম্মা। গত বছরই এসি মিলান ছেড়ে ফরাসি লিগ ওয়ানের দল পিএসজিতে যোগ দিয়েছেন তিনি।

চেলসির হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতা এদুয়াঁ মঁদি জিতেছেন ফিফা বর্ষসেরা গোলরক্ষকের পুরস্কার, তবে সেরা একাদশে জায়গা হয়নি তার। তবে মঁদির চেলসি সতীর্থ এনগোলো কঁতে ও জর্জিনিয়ো আছেন একাদশে।

ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা জেতা ডিফেন্ডার রুবেন দিয়াস ও কেভিন ডে ব্রুইনে আছেন একাদশে। সব মিলিয়ে প্রিমিয়ার লিগের পাঁচ জন ফুটবলার আধিপত্য করছেন ফিফপ্রো একাদশে।

ফিফপ্রো মেন্স একাদশ:

গোলরক্ষক: জানলুইজি দোন্নারুম্মা (এসি মিলান/পিএসজি/ইতালি)

ডিফেন্ডার: দাভিদ আলাবা (বায়ার্ন মিউনিখ/রিয়াল মাদ্রিদ/অস্ট্রিয়া), রুবেন দিয়াস (ম্যানচেস্টার সিটি/পর্তুগাল), লিওনার্দো বোনুচ্চি (ইউভেন্তুস/ইতালি)

মিডফিল্ডার: জর্জিনিয়ো (চেলসি/ইতালি), এনগোলো কঁতে (চেলসি/ফ্রান্স), কেভিন ডে ব্রুইনে (ম্যানচেস্টার সিটি/বেলজিয়াম)

ফরোয়ার্ড: ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো (ইউভেন্তুস/ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড/পর্তুগাল), আর্লিং হলান্ড (বরুশিয়া ডর্টমুন্ড/নরওয়ে), রবের্ত লেভানদোভস্কি (বায়ার্ন মিউনিখ/পোল্যান্ড) ও লিওনেল মেসি (বার্সেলোনা/পিএসজি/আর্জেন্টিনা)।