রেঞ্জার্সের অপেক্ষা বাড়িয়ে ইউরোপা লিগ চ্যাম্পিয়ন আইনট্রাখট

অতিরিক্ত সময়ের শেষ মুহূর্তে ইতি ঘটে যেতে পারত সবকিছুর। দারুণ এক সেভ করে ম্যাচ টাইব্রেকারে নিলেন কেভিন ট্রাপ। সেখানেও তিনি দেখালেন চমক। আবারও পা দিয়ে ঠেকিয়ে দিলেন প্রতিপক্ষের শট। রেঞ্জার্সের আশা গুঁড়িয়ে ইউরোপা লিগে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হলো আইনট্রাখট ফ্রাঙ্কফুর্ট।

সেভিয়ায় বুধবার রাতে ইউরোপের দ্বিতীয় সেরা ক্লাব প্রতিযোগিতাটির ফাইনালে নির্ধারিত ও অতিরিক্ত সময়ে স্কোরলাইন ছিল ১-১। পরে পেনাল্টি শুট আউটে ৫-৪ গোলে জেতে আইনট্রাখট।

৪২ বছর পর কোনো ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতার শিরোপা জিতল জার্মান দলটি। সবশেষ ১৯৮০ সালে স্বদেশের ক্লাব বরুশিয়া মনশেনগ্লাডবাখকে হারিয়ে উয়েফা কাপ (বর্তমানে ইউরোপা লিগ) জিতেছিল তারা।

পুরোটা সময়ে আক্রমণে আধিপত্য করে আইনট্রাখট। তাদের ভুলে দ্বিতীয়ার্ধে এগিয়ে যায় স্কটল্যান্ডের সফলতম দল রেঞ্জার্স। জাগায় ৫০ বছর পর ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায় ট্রফি জয়ের আশা। তবে সমতা টানেন রাফায়েল বোরে।

টাইব্রেকারে প্রথম তিনটি করে শটে গোল করে দুই দলই। অ্যারন র‌্যামজির নেওয়া রেঞ্জার্সের চতুর্থ শট ঠেকিয়ে দেন ট্রাপ। আর নিজেদের পঞ্চম শটে বোরে জালে বল পাঠাতেই উল্লাসে মাতে আইনট্রাখট।

বল দখলে দুই দল প্রায় সমানে-সমান থাকলেও শুরুতে পরিষ্কার সুযোগ তৈরি করতে পারছিল না কেউ। ২০তম মিনিটে প্রথম উল্লেখযোগ্য সুযোগ পায় আইনট্রাখট। ডান দিক দিয়ে বক্সে ঢুকে একজনকে কাটিয়ে আন্সগার নাফের নেওয়া শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান ৪০ বছর বয়সী গোলরক্ষক অ্যালান ম্যাকগ্রেগর।

ছয় মিনিট পর একটি হাফ চান্স পায় রেঞ্জার্স। সতীর্থের পাস ডি-বক্সের সামনে পেয়ে ২০ গজ দূর থেকে জো অরিবোর শট পোস্টের সামান্য বাইরে দিয়ে যায়। ৩৭তম মিনিটে জন লুন্ডস্ট্রামের হেডে বল এক হাতে ক্রসবারের ওপর দিয়ে পাঠান ট্রাপ।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেও ম্যাচে আধিপত্য ছিল আইনট্রাখটের। ৫৭তম মিনিটে তারাই খেয়ে বসে গোল। দায়টা তাদেরই। নিজেদের দিকেই হেড করেন জিব্রিল সো। বলের পেছনে ছুটতে গিয়ে ভারসাম্য হারিয়ে মাটিতে পড়ে যান ডিফেন্ডার তুতো। তার সঙ্গে লেগে থাকা অরিবো বক্সে ঢুকে বাঁ পায়ের শটে খুঁজে নেন ঠিকানা।

দুই মিনিট পর আইনট্রাখটের ইয়াসপের লিন্ডস্ট্রোমের শট ডি-বক্সে শরীর দিয়ে ঠেকান অরিবো। হ্যান্ডবলের দাবিতে পেনাল্টির আবেদন করেন জার্মান দলটির খেলোয়াড়রা। তবে রেফারির সাড়া মেলেনি।

৬৯তম মিনিটে সমতায় ফেরে তারা। বাঁ দিক থেকে ফিলিপ কোস্তিচের পাসে ছয় গজ বক্সের মুখে প্রতিপক্ষের খেলোয়াড় বাধা দেওয়ার আগে পা বাড়িয়ে বল জালে ঠেলে দেন কলম্বিয়ান ফরোয়ার্ড বোরে।

৯০ মিনিটের বাকি সময়ে আর তেমন কিছু করে দেখাতে পারেনি কেউ। অতিরিক্ত সময়ের শুরুর দিকে প্রতিপক্ষের ভুলে সুযোগ পেয়ে যায় আইনট্রাখট। সতীর্থের ব্যাকপাস নিয়ন্ত্রণে নিতে গিয়ে পা পিছলে পড়ে যান রেঞ্জার্স ডিফেন্ডার কালভিন বাসসি। বোরে বল পেয়ে ঢুকে পড়েন বক্সে। শেষ মুহূর্তে অবশ্য তাকে রুখে দেন বাসসি।

১১৮তম মিনিটে গোল প্রায় পেয়েই যাচ্ছিল রেঞ্জার্স। ডান দিকের বাইলাইন থেকে কাটব্যাক করেন কেমার রুফ। কাছ থেকে রায়ান কেন্টের শট পা বাড়িয়ে ঠেকিয়ে দেন ট্রাপ।

পরে টাইব্রেকারেও একটি শট ঠেকিয়ে নায়ক এই জার্মান গোলরক্ষক। নকআউট পর্বে রিয়াল বেতিস, বার্সেলোনা, ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেডকে হারিয়ে ফাইনালে আসা আইনট্রাখট শিরোপা উৎসব করল পুরো আসরে অপরাজিত থেকে।

এবারের বুন্ডেসলিগা আইনট্রাখট শেষ করেছে ১১ নম্বরে থেকে। এই শিরোপা জয়ের মধ্য দিয়ে দলটির নিশ্চিত হয়ে গেল আগামী মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলাও।