ফার্গুসনের পাশে বসার হাতছানিতে রোমাঞ্চিত গুয়ার্দিওলা

ম্যানচেস্টার সিটির কোচ পেপ গুয়ার্দিওলা
প্রিমিয়ার লিগে আরও একটি শিরোপার খুব কাছে দাঁড়িয়ে পেপ গুয়ার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটি। অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে শেষ রাউন্ডে নিজেদের কাজটা ঠিকঠাক করতে পারলেই পাঁচ বছরের মধ্যে চতুর্থ লিগ ট্রফি ঘরে তুলবে দলটি। আর সেটা হলে দারুণ এক অর্জনে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কিংবদন্তি স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসনের পাশে বসবেন গুয়ার্দিওলা।

ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ফার্গুসনের ২৬ বছরের অধ্যায়ে ইউনাইটেড তিনবার পাঁচ বছরে চারটি করে লিগ শিরোপা জিতেছিল। সিটির সামনে প্রথমবার এই কীর্তি গড়ার হাতছানি।

দারুণ এই অর্জনের সামনে দাঁড়িয়ে রোমাঞ্চিত সময়ের সেরা কোচদের একজন গুয়ার্দিওলা।

প্রিমিয়ার লিগে রোববার ঘরের মাঠে অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে খেলবে সিটি। ৩৭ ম্যাচে ৯০ পয়েন্ট নিয়ে যারা টেবিলের শীর্ষে। তাদের চেয়ে ১ পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকা লিভারপুল একই সময়ে খেলবে উলভারহ্যাম্পটন ওয়ানডারার্সের বিপক্ষে।

নিজেদের ম্যাচে সিটি জিতে গেলে কোনো হিসাব ছাড়াই চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাবে তারা। তবে হেরে গেলে লিভারপুলের সামনে খুলে যাবে দুয়ার। অবশ্য লিভারপুল হারলে বা ড্র করলে সিটি হেরে গিয়েও শিরোপার আনন্দে মাততে পারবে। কারণ গোল গড়েও বেশ এগিয়ে সিটি।

২০১৬-১৭ মৌসুমে গুয়ার্দিওলা সিটির দায়িত্ব নিয়ে দলটিকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন। বিশেষ করে ঘরোয়া প্রতিযোগিতায় যেন অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছে দলটি। সেই ধারাবাহিকতায় ফার্গুসনের ইউনাইটেডের কীর্তি ছোঁয়ার অপেক্ষায় তারা।

অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে মাঠে নামার আগে গুয়ার্দিওলা বললেন, এ জন্য নিজেদের উজাড় করে দেবেন তারা।

“অবশ্যই এটা (পাঁচ বছরে চারটি লিগ জয়) দারুণ ব্যাপার হবে। আমি যখন এখানে এসেছিলাম, সবাই বলত প্রিমিয়ার লিগ খুবই কঠিন, সবচেয়ে কঠিন।”

“শুধু স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসন পাঁচ বছরে চারটি লিগ জিতেছেন। যখন আমরা এটা করতে পারব, সেই সময় ইউনাইটেড দলের বিশালতা এবং তিনি কীভাবে এটা কয়েকবার করতে পেরেছিলেন, তা উপলব্ধি করতে পারবে সবাই। আমরা এমন কিছুর অংশ হওয়ার খুব কাছে এবং আমাদের এটি করার চেষ্টা করতে হবে।”