শেয়ার দরে অস্বাভাবিক ওঠানামা তদন্তের নির্দেশ স্থগিত

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ভবন
শেয়ার দরে অস্বাভাবিক ওঠানামার কারণ খুঁজে বের করার নির্দেশনা স্থগিত করেছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি)।   

বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক (চলতি দায়িত্ব) ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম বুধবার বিডিনিউজ টোযেন্টিফোর ডটকমকে এ তথ্য জানান।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, গতকালকে শেয়ারের দাম বাড়ার কারণ খতিয়ে দেখতে দুই স্টক এক্সচেঞ্জকে যে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল সেটা স্থগিত করা হয়েছে।

“পুঁজিবাজারের স্বার্থে এবং বিনিয়োগকারীদের স্বার্থে এই নির্দেশনা স্থগিত করা হয়েছে।”

পুঁজিবাজারে যেসব শেয়ারের দাম গত এক মাসের মধ্যে ৫০ শতাংশের বেশি ওঠানামা করেছে, তার পেছনের কারণ খতিয়ে দেখতে মঙ্গলবার দুই স্টক এক্সচেঞ্জকে নির্দেশ দিয়েছিল নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

বিএসইসি মার্কেট সার্ভেইলেন্স অ্যান্ড ইন্টেলিজেন্স ডিপার্টমেন্ট মঙ্গলবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং প্রধান আইন কর্মকর্তাকে ওই নির্দেশনা জানিয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছিল।

বিএসইসির উপ-পরিচালক মোহাম্মদ সামছুর রহমান স্বাক্ষরিত ওই চিঠিতে চারটি ক্ষেত্রের কথা বলা হয়েছিল, যেগুলো ঘটলে দুই স্টক এক্সচেঞ্জকে তদন্ত করতে হবে।

যেসব কোম্পানির শেয়ারের দাম গত ৩০ কার্যদিবস অথবা তার কম সময়ে ৫০ শতাংশের বেশি বেড়ে গেছে অথবা কমে গেছে, তদন্ত করে এর কারণ বের করতে হবে।

৪৫ দিনের মধ্যে সেই তদন্ত প্রতিবেদন বিএসইসিকে পাঠাতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে দুই স্টক এক্সচেঞ্জ কর্তৃপক্ষকে।

তালিকাভুক্ত যেসব কোম্পানির শেয়ার প্রতি মুনাফা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৫০ শতাংশ বা তার বেশি বেড়েছে, সেসব ক্ষেত্রেও তদন্ত করে দেখতে বলা হয়েছে।

গত এক মাসে যেসব কোম্পানির শেয়ারের লেনদেন আগের ৬ মাসের গড় লেনদেনের তুলনায় ৫ গুণ বা তার বেশি বেড়েছে, তারও কারণ খুঁজে বের করতে বলেছে বিএসইসি।

এছাড়া যেসব কোম্পানির শেয়ারের দাম এবং লেনদেন তাদের মূল্য সংবেদনশীল তথ্য প্রকাশের ১০ কার্যদিবস আগে থেকেই ৩০ শতাংশের বেশি বেড়েছে বা কমেছে, তার তদন্ত করতে দুই স্টক এক্সচেঞ্জকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।