৫০০ কোটি টাকার বন্ড ছাড়তে চায় যমুনা ব্যাংক

দেশের পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত যমুনা ব্যাংক বন্ড ছেড়ে ৫০০ কোটি টাকা তুলতে চায়।

মঙ্গলবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জকে (ডিএসই) ব্যাংকটি এই তথ্য জানিয়েছে।

বেসরকারি খাতের ব্যাংকটি এই টাকা দিয়ে মূলধন বাড়াতে চায়।

এখন বাংলাদেশ ব্যাংক ও পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি অনুমতি দিলে ব্যাংকটি টাকা তোলার প্রক্রিয়া শুরু করবে।

যমুনা ব্যাংকের বর্তমান বাজার মূলধন ১ হাজার ৩৩৩ কোটি ৬২ লাখ টাকা। কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ৭৪৯ কোটি ২৩ লাখ টাকা; রিজার্ভের পরিমাণ ৯৫৬ কোটি ৪৫ লাখ টাকা।

সরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান, মিউচুয়াল ফান্ড, ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি, তালিকাভুক্ত ব্যাংক, সমবায় ব্যাংক, আঞ্চলিক রুরাল ব্যাংক, সংগঠন, ট্রাস্ট ও স্বায়ত্তশাসিত করপোরেশন এই বন্ড প্রাইভেট প্লেসমেন্টের মাধ্যমে কিনতে পারবে।

বন্ডটি শেয়ারে রুপান্তর করা যাবে না। মেয়াদ শেষে বন্ডের পুরো টাকা বিনিয়োগকারীদের ফেরত দেওয়া হবে। বন্ডটি থেকে নিয়মিত সুদ দেওয়া হবে। 

২০০৬ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত এ কোম্পানির শেয়ার বর্তমানে লেনদেন হচ্ছে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে।

পুঁজিবাজারে এ কোম্পানির ৭৪ কোটি ৯২ লাখ ২৫ হাজার ৬৫০টি শেয়ার আছে। এর মধ্যে ৪৭ দশমিক ৯৪ শতাংশ আছে পরিচালকদের হাতে।

প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের হাতে আছে ৬ দশমিক ৬৮ শতাংশ শেয়ার, বিদেশিদের হাতে দশমিক ৩৫ শতাংশ শেয়ার এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে ৪৫ দশমিক শূণ্য ৩ শতাংশ শেয়ার আছে।

ইভেন্স টেক্সটাইল

ইভটেক্স ফ্যাশন নামে একটি প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তালিকাভুক্ত ইভেন্স টেক্সটাইল।

ইভটেক্স ফ্যাশন কেনার পরে এই নামে আর কোনো কোম্পানি রাখবে না ইভেন্স টেক্সটাইল।

এই কোম্পানির এর সমস্ত দায় দেনা এবং সম্পদের মালিক হবে তালিকাভুক্ত কোম্পানিটি।

এখন নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি ও হাই কোর্ট অনুমতি দিলে ইভেন্স টেক্সটাইল এই কোম্পানি কেনার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পারবে।

গ্রিন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স

তালিকাভুক্ত বীমা খাতের কোম্পানি গ্রিন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স আফতাব নগরে তাদের মালিকানায় থাকা ১০ কাঠার একটি জমি সাড়ে ৬ কোটি টাকা বিক্রি করতে চায়।

এখন বিএসইসির অনুমতি পেলে কোম্পানিটি এই জমি বিক্রি করবে।