সূচক বাড়লেও ডিএসইতে শেয়ারদর কমেছে বেশির ভাগের

একদিন পর সূচক সামান্য বাড়লেও প্রধান পুঁজিবাজার ডিএসইতে বেশির ভাগ শেয়ারের দরপতন থামেনি, লেনদেনও কমেছে।

মঙ্গলবারও আড়াইশ’র বেশি শেয়ারের দাম কমেছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই)। এ নিয়ে গত আট কার্যদিবস ধরে বেশির ভাগ শেয়ারের দাম কমছে। বিপরীতে বড় মূলধনি কোম্পানিগুলোর দরবৃদ্ধি সূচককে ঊর্ধ্বমুখী রেখেছে। দিনভর সূচকের ওঠানামার পর দিন শেষে সূচক সামান্য বেড়েছে।

তবে সূচক কমেছে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই)। এদিন দেশের দ্বিতীয় পুঁজিবাজারের প্রধান সূচক সিএএসপিআই ৩৯ দশমিক ৮৮ পয়েন্ট কমে নেমে গেছে ২১ হাজার ৪৩৩ দশমিক ২৭ পয়েন্টে।

মঙ্গলবার ডিএসইতে আগের দিনের ধারাবাহিকতায় দরপতনেই লেনদেন শুরু হয়। প্রথম ৩০ মিনিটের মাথায় প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিন থেকে ৫০ পয়েন্ট কমে যায়।এরপর বড় মূলধনি কোম্পানিগুলোর শেয়ারদর বাড়তে থাকলে পতন থেমে ঊর্ধ্বমুখী হতে থাকে সূচক।

দিন শেষে ডিএসইএক্স আগের দিন থেকে ৩ দশমিক ৮৫ পয়েন্ট বা দশমিক শূন্য ৫ শতাংশ বেড়ে ৭ হাজার ৩৩১ দশমিক ৩৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

এদিন এ বাজারে সূচক বাড়লেও আগের দিনের তুলনায় ১৪ দশমিক ৬৩ শতাংশ বা ৪০৩ কোটি ১৬ লাখ টাকা কমে দুই হাজার ৩৫২ কোটি ৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়, যা আগের কর্মদিবসে ছিল ২ হাজার ৭৫৫ কোটি ২১ লাখ টাকা।

মঙ্গলবার ডিএসইতে ৭১ দশমিক ৫০ শতাংশ কোম্পানির দাম কমেছে। এর বিপরীতে ২০ শতাংশের দাম বেড়েছে এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৮ দশমিক ৫০ শতাংশ কোম্পানির শেয়ারের দাম।

লেনদেন হওয়া ৩৭৬টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিটের মধ্যে দর বেড়েছে ৭৫টির এবং কমেছে ২৬৯টির। অপরিবর্তিত রয়েছে ৩২টির দর।

এ বাজারের অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক দশমিক ৬৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১ হাজার ৫৯৪ দশমিক ৪৩ পয়েন্টে।

ডিএস৩০ সূচক ১২ দশমিক ৮৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ২ হাজার ৭৭৮ দশমিক ১২ পয়েন্টে।

২৯৭ শেয়ারের দরপতনে ৫ দিন পর কমল সূচক  

লেনদেনের শীর্ষ ১০টি কোম্পানি

লাফার্জহোলসিম, ওরিয়ন ফার্মা, বেক্সিমকো লি:, জিপিএইচ ইস্পাত, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, সাইফ পাওয়ারটেক, বেক্সিমকো ফার্মা, ইফাদ অটোস, পাওয়ার গ্রিড ও অ্যাডভেন্ট ফার্মা। 

দাম বাড়ার শীর্ষ ১০টি কোম্পানি

ওরিয়ন ফার্মা, ওরিয়ন ইনফিউশন, শাইনপুকুর সিরামিক্স, জিপিএইচ ইস্পাত, তৌফিকা ফুডস অ্যান্ড লোভেল্লো, অ্যাডভেন্ট ফার্মা, প্রাইম ফাইন্যান্স, লাফার্জহোলসিম, দি একমি ল্যাবরেটরিজ ও ইফাদ অটোস।

সবচেয়ে বেশি দর হারানো ১০টি কোম্পানি

আইসিবি ইসলামিক ব্যাংক, শ্যামপুর সুগার মিলস, আজিজ পাইপস, অ্যাগ্রিকালচারাল মার্কেটিং কোম্পানি, আমরা নেটওয়ার্ক, ফার্মা এইডস, বাংলাদেশ অটোকারস, রংপুর ফাউন্ড্রি, ফারইস্ট ফাইনান্স ও বাংলাদেশ ওয়েলডিং ইলেক্ট্রোডস I

এদিন সিএসইতে ৩১৮টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড ইউনিট কেনাবেচা হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৭০টির, কমেছে ২১৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩০টির দর।

এ বাজারে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় ২২ দশমিক ১০ শতাংশ বা ২৫ কোটি ৪৮ লাখ টাকা কমে ৮৯ কোটি ৮৭ লাখ টাকায় নেমেছে। আগের দিন যা ছিল ১১৫ কোটি ৩৫ লাখ টাকা।