পুঁজিবাজারের দুর্বলতা ঠিক করা হচ্ছে: বিএসইসি কমিশনার

২০২৫ সালের মধ্যে বাংলাদেশের পুঁজিবাজারের বাজার মূলধনকে জিডিপির ৫০ শতাংশে নিয়ে যেতে বাজারের দুর্বলতা ঠিক করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কমিশনার আব্দুল হালিম।

বিশ্ব বিনিয়োগকারী সপ্তাহ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশ লিমিটেডের এক সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান তিনি।

হালিম বলেন, “বর্তমানে বাংলাদেশের পুঁজিবাজারের বাজার মূলধন মোট জিডিপির ২০ শতাংশের কাছাকাছি। আমরা লক্ষ্য নিয়েছি ২০২৪ থেকে ২০২৫ সালের মধ্যে আমরা পুঁজিবাজারের বাজার মূলধন মোট জিডিপির ৪০ থেকে ৫০ শতাংশে নিয়ে যাব।

“এজন্য পুঁজিবাজারের যেসব জায়গায় দুর্বলতা আছে, সেগুলো ঠিক করার জন্য আমরা কাজ করছি। এর মধ্যে বিএসইসিতে জনবল বাড়ানো হয়েছে।”

বর্তমান কমিশন আইন পরিপালনের ‘খুবই কঠোর’ জানিয়ে তিনি বলেন, “পুঁজিবাজারের ভালোর জন্য, বিনিয়োগকারীদের ভালোর জন্য যত কঠিন সিদ্ধান্তই হোক, সেটা কমিশন নেবে। কোন ধরনের অসৎ আচরণ প্রশ্রয় দেওয়া হবে না।”

ভার্চুয়াল এই সংবাদ সম্মেলনে ছিলেন সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশ লিমিটেডের (সিডিবিএল) চেয়ারম্যান শেখ কবির হোসেন, ভাইস চেয়ারম্যান এ কে এম নূরুল ফজল বুলবুল এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শুভ্র কান্তি চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ রেজাউল করিম।

বিশ্বের পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোর সংগঠন ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন অব সিকিউরিটিজ কমিশন (আইওএসসিও) এর সদস্য হিসেবে ২০১৭ সাল থেকে বিশ্ব বিনিয়োগকারী সপ্তাহ পালন করে আসছে বিএসইসি।

এবার ৪ থেকে ১২ অক্টোবর এ সপ্তাহ উদযাপনকালে পুঁজিবাজার নিয়ে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হচ্ছে। এবারের মূল প্রতিপাদ্য- টেকসই অর্থায়ন এবং আর্থিক প্রতারণা-কেলেঙ্কারি প্রতিরোধ।