মার্চেন্ট ব্যাংকারদের ‘মার্কেট মেকারের’ ভূমিকায় চায় বিএসইসি

মার্চেন্ট ব্যাংকাররা যাতে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের মতো আচরণ  না করে, এমন পরামর্শ দিয়ে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি তাদের ‘মার্কেট মেকারের’ ভূমিকায় দেখতে চেয়েছে।

মঙ্গলবার দেশের শীর্ষস্থানীয় মার্চেন্ট ব্যাংকারদের সঙ্গে বৈঠকে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) পক্ষ থেকে এমন পরামর্শ দেওয়া হয়।

এর কারণ হিসেবে কমিশনের পক্ষ থেকে বলা হয়, দেশের পুঁজিবাজারে সম্প্রতি যে পতন হয়েছে সেখানে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের মতো একইভাবে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা শেয়ার বিক্রি করেছেন।

এমন তথ্য জানিয়ে কমিশনের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক রেজাউল করিম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, বৈঠকে মার্চেন্ট ব্যাংকারদের বলা হয়েছে- যখন ভালো শেয়ারের দাম কমে যায় তারা যেন তখন মার্কেট মেকারের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়।

বৈঠকে বিএসইসি কমিশনার শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ ও নির্বাহী পরিচালক রেজাউল করিমসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা এবং বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমবিএ) সভাপতি ছায়েদুর রহমানের নেতৃত্বে ২৫ মার্চেন্ট ব্যাংকার অংশ নেন।

শীর্ষস্থানীয় মার্চেন্ট ব্যাংকাররা গত কয়েকদিনের টানা পতনকে ‘মূল্য সংশোধন’ বলে মনে করেন। এ বৈঠকে বেশির ভাগই এমন মন্তব্য করেছেন বলে জানিয়েছেন কমিশনার শামসুদ্দিন।

তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আমরা প্রতি মাসে দেশের বড় মার্চেন্ট ব্যাংকারদের সাথে বৈঠক করি। আজকে সেই নিয়মিত বৈঠক হয়। আমরা তাদের কাছে জানতে চেয়েছিলাম সম্প্রতি যে পতন হয়েছে সে বিষয়ে তাদের মতামত কি?

“তারা জানিয়েছেন বিনিয়োগকারীদের অনেকেই মুনাফা তুলে নেওয়াতেই এরকম পতন হয়েছে।”

এই কমিশনারও মনে করেন দেশের পুঁজিবাজারে একটি পতন দরকার ছিল। তিনি বলেন, “যেভাবে বাড়ছিল সেটা হয়ত, টিকত না। এখন পতন হয়েছে, পুঁজিবাজার আবার ঘুড়ে দাঁড়াবে।”   

মার্চেন্ট ব্যাংকাররা জানিয়েছেন সামনে পতন হলে তারা আরও সক্রিয় থাকবেন যাতে পতন এত বড় না হয়, যোগ করেন তিনি।

টানা উত্থানের পর গত কয়েকদিন থেকে আবার ধারাবাহিকভাবে কমছে সূচক। দর সংশোধন দীর্ঘ হওয়ায় ‘ভীতি’ ছড়িয়েছে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে। এতে শেয়ার বিক্রির হিড়িক পড়ে, যা দরপতনকে উসকে দেয়। 

ডিএসই সূচক গত ৬ জুলাই ছয় হাজার পয়েন্টের নিচে ছিল, যা একপ্রকার টানা বেড়ে ১০ অক্টোবর ২৩ দশমিক ৩০ শতাংশ বা ১ হাজার ৩৯২ পয়েন্ট বেড়ে ৭ হাজার ৩৫০ পয়েন্ট ছাড়িয়েছিল।

এরপর থেকে আবার টানা পতনে প্রধান সূচক ডিএসইএক্স সাড়ে ৬ শতাংশ কমে তা সোমবার ৭ হাজার পয়েন্টের নিচে নেমে যায়। এক দিন পর আবার বড় উত্থানে সূচক ৭ হাজারের মাইলফলক ছাড়িয়েছে।

আরও পড়ুন-

এক দিন পরই বড় উত্থান পুঁজিবাজারে

এক দিন পরই বড় উত্থান পুঁজিবাজারে  

উত্থানে শুরু বড়পতনে শেষ, সূচক ৭ হাজার পয়েন্টের কাছে  

দরপতনে ‘ভয়’: ডিএসই সূচক ফের ৭ হাজারের নিচে