ডিএসইতে লেনদেন কমলো ৫৬০ কোটি টাকা

ঊর্ধ্বমুখী ব্যাংক খাতের প্রভাবে আগের দিন সূচক সামান্য কমলেও সপ্তাহের দ্বিতীয় দিন সোমবার দেশের দুই পুঁজিবাজার বড় পতন দেখেছে।

ব্যাংকসহ সব খাতের শেয়ারের দাম কমার প্রভাবে একদিন পরেই ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন কমেছে ৫৬০ কোটি টাকার বেশি।

দিন শেষে এ বাজারের প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিন থেকে ৬৩ দশমিক ৩৮ পয়েন্ট বা দশমিক ৮৯ শতাংশ কমে ৭ হাজার ২২ দশমিক ২৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

অপর পুঁজিবাজার সিএসইতেও বড় পতন হলে প্রধান সূচক সিএএসপিআই ১৬০ দশমিক ২৯ পয়েন্ট কমে ২০ হাজার ৫৫৯ দশমিক শূন্য ১ পয়েন্টে নেমেছে।

সোমবার ডিএসইতে ৬০ শতাংশ কোম্পানির দাম কমেছে। এর বিপরীতে ২৯ শতাংশের দাম বেড়েছে এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১১ শতাংশ কোম্পানির শেয়ারের দাম।

ব্যাংকের শেয়ার বাড়াল লেনদেন  

এ বাজারে লেনদেন হওয়া ৩৫৯টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিটের মধ্যে দর বেড়েছে ১০৪টির ও কমেছে ২১৬টির। অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৯টির দর।

ঢাকার অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৪ দশমিক ২৯ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ৪৭০    দশমিক ৯৭ পয়েন্টে।

ডিএস৩০ সূচক ১৬ দশমিক ৮৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ২ হাজার ৬৬৬ দশমিক ৯৯ পয়েন্টে।

লেনদেনের শীর্ষ ১০টি কোম্পানি

ওয়ান ব্যাংক, আইএফআইসি ব্যাংক, এনআরবিসি ব্যাংক, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক, ফরচুন সুজ, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, ওরিয়ন ফার্মা, ডেল্টা লাইফ, প্রিমিয়ার ব্যাংক ও মার্কেন্টাইল ব্যাংক।

দাম বাড়ার তালিকায় শীর্ষ ১০টি

সেনা কল্যাণ ইন্স্যুরেন্স, একমি পেস্টিসাইড, কাট্টলি টেক্সটাইল, আমান ফিড, ওয়ান ব্যাংক, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক, ফুওয়াং ফুড, আলিফ ম্যানুফ্যাকচারিং ও রহিম টেক্সটাইল। 

বেশি দর হারানো ১০টি কোম্পানি

কোহিনূর কেমিকেল, রিজেন্ট টেক্সটাইল, আরামিট সিমেন্ট, আমরা টেকনোলজিস, স্টাইল ক্রাফট, এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক, মিথুন নিটিং, ইয়াকিন পলিমার, ইন্দো বাংলা ফার্মা ও বিআইএফসি।

এদিন চট্টগ্রামের পুঁজিবাজারে সূচক ও লেনদেন কমেছে। 

সিএসইতে ২৮৭টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড কেনাবেচা হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৯৯টির, কমেছে ১৬১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৭টির দর।

এ বাজারে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় ৪০ দশমিক ১৫ শতাংশ বা ২৮ কোটি ৮৫ লাখ টাকা কমেছে।

এদিন মোট ৪২ কোটি ৯৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিন ছিল ৭১ কোটি ৮৫ লাখ টাকা।