ডিএসইতে লেনদেন হাজার কোটির নিচে

সূচকের ঊর্ধ্বমুখী ধারা বজায় থাকলেও সপ্তাহের প্রথম দিন লেনদেন কমে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) হাজার কোটি টাকার নিচে নেমেছে।

রোববার শুরু থেকে প্রধান এ বাজারে সূচক বাড়লেও দিনের মাঝামাঝিতে তা আগের দিনের চেয়ে ৫ পয়েন্ট নেমে যায়। বাকি সময়ে ওঠানামার মধ্য দিয়ে লেনদেন হলেও সূচক বেড়ে দিন শেষ হয়েছে।

তবে বাংলাদেশ ব্যাংকের সঙ্গে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থার বৈঠক ইস্যুতে বাজারে সাম্প্রতিক অস্থিরতা কারণে শেয়ার কেনাবেচায় গতি ছিল কম। এ কারণে ডিএসইতে লেনদেন নেমেছে হাজার কোটি টাকার নিচে; মোট লেনদেন হয়েছে প্রায় ৮৯৫ কোটি টাকা।

রোববারসহ তিন দিনে প্রধান এ বাজারের প্রধান সূচক ডিএসইএক্স

বেড়েছে ২৬২ পয়েন্ট।এর আগের আট কার্যদিবসের মধ্যে সাতদিনই এ সূচক কমেছিল ৩৮৮ দশমিক ৫৬ পয়েন্ট।

দিন শেষে ডিএসইএক্স আগের দিন থেকে ২৯ দশমিক ৪৩ পয়েন্ট বা দশমিক ৪২ শতাংশ বেড়ে ৬ হাজার ৯৬৫ দশমিক ৬৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

এদিন দেশের অপর পুঁজিবাজার সিএসই এর সূচকও বেড়েছে। চট্টগ্রামের এ বাজারের প্রধান সূচক সিএএসপিআই ১৬১ দশমিক শূন্য ৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ২০ হাজার ৪১৫ দশমিক ৯৩ পয়েন্টে।

রোববার ঢাকার বাজারে আগের দিনের তুলনায় ২৮ দশমিক ১৩ শতাংশ বা ৩৫০ কোটি ২১ লাখ টাকা কমে ৮৯৪ কোটি ৯৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়, যা আগের কর্মদিবসে ছিল এক হাজার ২৪৫ কোটি ২০ লাখ টাকা।

এদিন এ বাজারে লেনদেন হওয়া ৩৭৩টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিটের মধ্যে দর বেড়েছে ২৪৫টির ও কমেছে ৭৯টির। অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৯টির দর।

ঢাকার অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ২ দশমিক ১৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১ হাজার ৪৬১    পয়েন্টে দশমিক শূন্য ৭ পয়েন্ট।

ডিএস৩০ সূচক ২ দশমিক ৩২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ২ হাজার ৬৩৮ দশমিক ২৬ পয়েন্টে।

লেনদেনের শীর্ষ ১০টি কোম্পানি

বেক্সিমকো লিঃ, ওয়ান ব্যাংক, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামি ব্যাংক, ডেল্টা লাইফ, পাওয়ার গ্রিড, ফরচুন সুজ, আইএফআইসি ব্যাংক, অরিয়ন ফার্মা, সোনালী পেপার ও  একমি পেস্টিসাইড।

দাম বাড়ার তালিকায় শীর্ষ ১০টি

এশিয়া ইন্স্যুরেন্স, স্টাইল ক্র্যাফট, সেনা কল্যাণ ইন্স্যুরেন্স, প্রাইম ইন্স্যুরেন্স, ইনফর্মেশন সার্ভিসেস নেটওয়ার্ক, আমরা নেটওয়ার্ক, সিভিওপিআরএল, রহিমা ফুড, ইনটেক ও গ্রিন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স। 

বেশি দর হারানো ১০টি কোম্পানি

ভ্যানগার্ড এএমএল বিডি ফাইন্যান্স মিঃ ফাঃ ১, শাহজীবাজার পাওয়ার, দুলামিয়া কটন, নিউ লাইন ক্লোথিংস, বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামি ব্যাংক, এনভয় টেক্সটাইল, এমজেএল বাংলাদেশ, একমি পেস্টিসাইড ও ওয়ান ব্যাংক।

এদিন চট্টগ্রামের পুঁজিবাজার সিএসইতে ২৯৫টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড কেনাবেচা হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৯২টির, কমেছে ৭৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৬টির দর।

এ বাজারে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় ১ দশমিক ৮২ শতাংশ বা ১ কোটি ১৩ লাখ টাকা বেড়েছে।

এদিন মোট ৬৩ কোটি ৩৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিন ছিল ৬২ কোটি ১৯ লাখ টাকা।