চিপ ঘাটতি: ক্ষতিপূরণের খোঁজে ফোকসভাগেন

ছবি- রয়টার্স
কম্পিউটার চিপের ঘাটতির কারণে সরবরাহকারী বশ এবং কন্টিনেন্টালের কাছে সম্ভাব্য ক্ষতিপূরণের দাবি জানানোর কথা ভাবছে গাড়ি নির্মাতা জার্মান প্রতিষ্ঠান ফোকসভাগেন।

চিপ সরবরাহে সমস্যার কারণে উৎপাদন সারি বন্ধ করছে বিশ্বজুড়ে অনেক গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান। কিছু ক্ষেত্রে এই ঘাটতির জন্য দায়ী ট্রাম্প প্রশাসন। চীনা মূল চিপ কারখানাগুলোর বিরুদ্ধে ট্রাম্প প্রশাসনের পদক্ষেপের কারণে এমনটা হয়েছে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

কম্পিউটার চিপ ঘাটতির প্রভাব পড়েছে ফোকসভাগেন, ফোর্ড মোটর, সুবারু কর্পোরেশন, টয়োটা মোটর কর্পোরেশন, নিসান মোটর, ফিয়াট ক্রাইসলার অটোমোবিলস এবং অন্যান্য গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, সেমিকন্ডাক্টরের বিকল্প সরবরাহকারীর জন্য আলোচনা করেছে ফোকসভাগেন। কিন্তু এতে দাম বাড়তে পারে বলে শঙ্কা রয়েছে।

বাড়তি দামের কিছুটা যাতে বশ এবং কন্টিনেন্টাল বহন করে সে বিষয়টি নিশ্চিত করতে চাচ্ছে ফোকসভাগেন।

গ্রাহক এবং বিকল্প সরবরাহকারীদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে বশ সরাসরি আলোচনা করতে প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানের এক সূত্র।

চিপ ঘাটতি কাটিয়ে তুলতে তাইওয়ানিজ সরবরাহকারীর সহায়তা নেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন জার্মান অর্থ মন্ত্রী পিটার অলমাইয়ার। করোনাভাইরাস মহামারীতে অর্থনীতি পুনরুদ্ধার এই ঘাটতির কারণে বাধাগ্রস্থ হচ্ছে বলে দাবি করেছেন তিনি।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় চুক্তিভিত্তিক চিপ নির্মাতা তাইওয়ান সেমিকন্ডাক্টর ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানি লিমিটেডের (টিএসএমসি) সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে বলেছে অলমাইয়ার। জার্মানির মূল সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানও এই টিএসএমসি।